ভগবদগীতা-সমালোচনা | Bhagavadgita Samalochona

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ভতগবদুগীতা-সমালোচনা ৷ ১১‘Egat অপেক্ষা কর্মানুষ্ঠানই casi তদ্বিষয়ে অনেক গুলি নজিরও দেখাইলেন। (5) জনকাদি খবিরা নাকি কেবল মাত্র কর্ম দ্বারাই সিদ্ধি লাভ করিয়াছিলেন । (২য়) ea সময় প্রজাপতি এরূপ বন্দোবস্ত করিয়াছেন যে, প্রজ্াগণ যজ্ঞ দ্বারা দেবতাগণকে cafes করিবেন, এবং দেবতাগণও বৃষ্টি দ্বারা MAA উৎপত্তি করিয়া প্রজাদিগকে সংবনদ্ধিত করিবেন । এইরূপ পরস্পর পরস্পরের সংবন্ধন] afam পরম cae লাভ করিবেন। এই cata কলিকালে যজ্ঞ কর্ম যেরূপ লোপ প্রাপ্ত হইতেছে, তাহাতে দেবতাকুলের Bases উপস্থিত না হয়, তদ্বিষয়ে দৃষ্টি রাখা হিন্দু মাত্রেই কর্তব্য। তেত্রিশ কোটা দেবতার ভরণপোষণের গুরু ভার তাহাদের স্কন্ধেই ন্যস্ত। খ্রীীয়ান মুসলমানগণের নিকট, ইহা প্রত্যাশা sal যায় Ai কেননা তাহারা এমন “চোর” যে, পঞ্চ যজ্ঞাদি দ্বার! দেব- a, পরিশোধ না করিয়াই দেবদন্ত অন্নাদি অম্লান বদনে ভক্ষণ করে!!! কৃষ্ণ বলিলেন,“ যজ্ঞ হইতে মেঘের উৎপত্তি sy, মেঘ হইতে aie এবং বৃষ্টি হইতে arma উৎপত্তি হয়” “কোন কোন পণ্ডিত কৃষ্ণের এই সংসার বর্ণনা শুনিয়া হাস্য করায়” গীতারহস্তযজ্ঞ আর এক পণ্ডিত ইহার এক সুন্দর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা বাহির করিয়৷ দিয়াছেন । তিনি বলেন, “যজ্ঞযগ্ধ ys কাষ্ঠাদি হইতে ধূম বহিগগত হয়। যদি প্রতি গৃহে হোম করা যায়, তবে প্রভূত ধূম রাশি উৎপন্ন হইবে, এবং এ বাষ্প রাশি হিমালয়ের পারবে আবদ্ধ seq মেঘের উৎপত্তি করিতে পারে। পরে মেঘ হইতে জল এবং জল হইতে শস্য এবং শস্য হইতে প্রাণিগণের Bea হইতে পারে।” এরূপ যুক্তির উত্তর দিবার আবশ্যকত৷ ছিল না, আশ্চর্যের বিষয় এই যে, আমাদের দেশের অনেক শিক্ষিত (9) লোকের মুখেও এই সকল অসার কথা শুনা যায়। স্কুলের বালকেরাও অবগত আছে যে, কাষ্ঠদি দগ্ধ করিলে কেবল মাত্র জলীয় বাষ্প বহিগত হয় না, কার্ববনিক এসিড প্রভৃতি বাষ্প থাকে, তাহা শীতল হইলে জল হয়, না] প্রভূত পরিমাণে sre দগ্ধ করিলেও সামান্য পরিমাণ qe stata উপযুক্ত জলীয় বাষ্প বহিগত হয় না। বাষ্প বিগত হইলেও, যে দেশে SIS দগ্ধ হইল, সেই স্থানেই বৃষ্টির সম্ভারন৷



Leave a Comment