অলীক মানুষ | Alik Manush

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
আউজুবিল্লাহে শয়তান-ইর রাজিম। বিশমিল্লাহে 'রহমান-ইর রহিম |বদিউজ্জামানের কণ্ঠস্বর ছিল জোরালো, উদাত্ত | জমিদারি মসজিদের মিনারে উঠে কোনো-কোনো ফজরে আজান দিতেন নিজেই | সারা খয়রাডাঙ্গার ঘুম ভেঙে যেত | মধুরস্বরে কোরান আবত্তিকারদের বলা হয় কারি এবং কোরান যাঁদের মুখস্থ তারা হাফিজ | বদিউজ্জামান ছিলেন কারি এবং হাফিজ দুই-ইকোরানের সুরা ইয়াসিন আবৃত্তি করছিলেন তিনি। বিপদে-আপদে এই সুরা Uae করা হয়। নীলধূসর চৈত্রের আকাশের নিচে সেই গম্ভীর ও উদাত্ত ধ্বনি ছড়িয়ে যাচ্ছিল চারদিকে | বলদগুলোও যেন শ্বাস ফেলতে ভুলে গিয়েছিল | চারপাশে কাশবনে শনশন হাওয়ার শব্দ, বনচড়ুইয়ের ঝাকেব অস্ফুট ডাকাডাকি, ঘাসফড়িঙউদের প্রচ্ছন্ন চিৎকার, তার মধ্যে সঙ্গীতময় ওই পবিত্র এশী-ধ্বনিপুঞ্জ । খাগড়ির cites ওপারে দুটি শাদা সারস মর্মর পাথরের মুর্তি হয়ে গেল।কিছুক্ষণ 1 পরে অলৌকিক ঘটনাটি ঘটল | একেই বলে বুজুর্গের মোজেজা- দিব্যশস্তির নিদর্শন | পরে চাপা গলায় লোকগুলিকে বলাবলি করতে শুনেছিল শফি, এ মোজেজাই AW | Barra অসাধ্য তো কিছু নাই।বহুবছর পরে শফি ইংরেজ সাহেব দেখেছিল | কিন্তু উলুশরার কাশবনে খাগড়ির সৌতারও পারে যাকে দেখেছিল, তার সঙ্গে ইংরেজ সাহেবের কোনো GATS হয়না। আরও পরে সে প্রথম ধুতরোর ফুলের গড়ন প্রকাণ্ড চোঙওবসানো গ্রামোফোনTE দেখেছিল এবং রেকর্ডে 'জন্মাষ্টমী' নামে নাটক শুনেছিল | সেই ধাতব কণ্ঠস্বর শুনে হঠাৎ খুব চেনা মনে হয়েছিল — আগেও কোথায় যেন শুনেছে। কিন্তু মনে পড়েনি | তখন শফির মন ভারাক্রান্ত, মগজে অন্য দুনিয়ার aT |ভরা ASIA ওপারের শাদা সারসগুলি হঠাৎ উড়ে যাওয়ায় সবার দৃষ্টি পড়েছিল সেদিকে | উঁচু কাশবনের ভেতরে থেকে হঠাৎ বেরিয়ে এল অসম্ভব শাদা এক মানুষ | দিনের উজ্জ্বল আলোয় তার শাদা চুল, শাদা ভুরু, শাদা চোখের পাতা স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিল । তার মুখে গৌফদাড়ি ছিল না । সে চিৎকার করে বলল, রাস্তা ভুল হয়েছে। তারপর হাত তুলে ইশারায় এপারে সৌতার Aree দেখিয়ে বলল, কিনারা ধরে চলে যান।বদিউজ্জামান wage বন্ধ করেননি। কণ্ঠস্বর নামিয়ে এনেছিলেন মাত্র অসিমুদ্দিন বলল, এদিকে তো লিক (চাকার দাগ) নাই ভাইজান !ওপারের শাদা লোকটি বলল, তাতে কী ? গাড়ি ডাকান । আমি এপারে থেকে সঙ্গে যাচ্ছি।গাড়ির মুখ ঘোরানো হল। কাশের বন ভেঙে গাড়িগুলো সৌতার সমান্তরালে চলতে থাকল | এবারে পায়ে হাটার সমস্যা । তাই সবাইকে গাড়িতে উঠতে za | কুলসুমকে রাতের মতো চাপানো হ'ল সাইদার টাপরের পেছনে | শফি চাপল মায়ের গাড়িতে গাড়োয়ানের পেছনে | সাইদা পরদার ফাঁকে ডানদিকে তাকিয়ে ওপরের শাদা লোকটিকে দেখছিলেন | তার চোখের চাউনিতে বিস্ময় ঝিলিক দিচ্ছে। শফি ফিসফিস করে ডাকল, আম্মা |কী বেটা ?শফি চুপ করে গেল । সে জিনের কথা বলবে ভেবেছিল | fey তার কথা20



Leave a Comment