গল্পসমগ্র | Galpasamagra

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
হারায়নি-কতটুকু ওর প্রয়োজন-_-কি রিক্ত--কতখানি পূর্ণ; চারিদিকে সম্পূর্ণতার দছোঁয়া--বনগন্ধ- পরিপূর্ণ সবুজ, স্বাধীন | ট্রেনলাইন কোথায় চলে গেছে...সিগনাল পোষ্ট-__তারপরে একটা শিমুলগাছ, তার লীলামমনীয় শাখা, আরও দূরে কালো বনরেখা-_তারপর উদার আকাশে wee সূর্য__-তারই পাশে জীর্ণ, খণ্ড ক্ষুব্ধ, Aef মেঘ-- প্রান্তে প্রান্তে রক্ত লেখা | মনে হলো সুর কল্যাণ ধ্বনিত হয়ে উঠছে | মনে হল, আমার কল্পনায় যেন ছিল এই ছবিটী, এই সৌন্দর্য্য এ'ছাড়া জগতে আমি কিছু চাইনি, শুধু এই | কলাবতী, তার পারিপার্বিক ছবিটী এই চরম পূর্ণতার । মনে হলো লক্ষ শত যুগের মানুষ যা কল্পনা করেছে, যা চিন্তা করেছে তা এই কলাবতীর জীবন যাত্রার মধ্যে আমি দেখতে পেলাম; দেখার আগেভাগে | দেখলাম হৃদয় নিয়ে বাঁচা আর কিছু নয় । হৃদয় নিয়ে বাঁচা, প্রতি aS পরমাণুতে..তার আত্মায় আমি বিমুগ্ধ হয়েছিলাম |দেখলাম ইট সাজিয়ে উনুন হলো, অন্য মেয়েটী মুখ নীচু করে ফুঁ দিয়ে প্রয়াস পাচ্ছিল আগুন সজ্বালবার জ্বাললে আগুন-_তাতে গাঢ় wife হাঁড়ি চাপালে |জিজ্ঞেস করলাম, ওতে কি হবে ?কলাবতী বললে, ওতে ! ওতে চা Aaচা 1...তুমি..'তুমি চা খাবে...?যদি দয়া কর-_দয়া আবার কি...কিন্তু আমরা কেউ থালায় ঘটিতে খাবো যে--আমিও তাই খাবো--আমার রকম সকম দেখে ও একটা হাসির ফোয়ারা হয়ে উঠলো | বুঝলাম-_ ভেবেছে কি বিরাট আস্ত পাগল-জীবনে সে কখনও দেখেনি-_ আর আর মেয়েরা, তারা দৃষ্টি দিয়ে, ভঙ্গি দিয়ে-_শ্রদ্ধা জানাচ্ছিল, হৃদয় পেতে অতিথি সংকার করছিল আর সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন দৃষ্টি দিয়ে আমায় বুঝবার চেষ্টা করছিল | কলাবতীকে বললাম, বাপু এ মোড়া থাক আমি মাটিতে বসি ।ওরা FB তটস্থ হয়ে অনেক খোঁজার পর ধুজে আনলে সব চেয়ে যেটী Sia মাদুরী পাতলে | আমার ইচ্ছে হচ্ছিল লুটীয়ে পড়ি--হৃদয় অকারণে aw হয়ে উঠছিল- অপূর্ব অনৈর্সর্সিক আনন্দেব তীব্রতায়.-আমি বসলাম, আমার পাশে একটী ছোট মেয়ে, তারই পাশে একটা বুড়ী, আর সামনে কলাবতী | অন্য তরুণী AY চা প্রস্তুত করছিল | We) বললে, আমার মত নাকি তার একটা ছেলে আছে, তার বয়েস হবে এক কুড়ি এক কি দুই, কাজ করে আসামে.--তরুণী বললে, অনেকদিন পরে দুধ দিয়ে চা হচ্ছে.-চা ACA PTAA চায়ে চুমুক দিতেই নাড়ি বিদ্রোহ করে উঠলো-_বমি এলো-_কি বিশ্রী--রাম রাম তবু হেসে বললাম, চমৎকার...কলাবতী হাসিবিগলিত বদনে বললে, সব কিছু চমৎকার...নিশ্চয়...খবর নিলাম ওদের আজ কি রান্না হবে | শুনে মনে হলো era আজ পরম উৎসব | তারপর কলাবতীর সবামী এলো, তার নাম জীবদয়াল-_কাল, সুপুরুষ আমার আগমনে সে খুব খুশী হয়েছে। তার সঙ্গে নানান গল্প হলো; সে লাইনে কাজ করে | রাত হয়েছে সেটা স্মরণ করিয়ে দিয়ে কলাবতী বললে, বাবু এখন বাড়ী যাও... ২৬



Leave a Comment