শৈল-ভবন | Shaila-bhavan

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
রুপোর থালার ওপর শরবতের গেলাস নিয়ে গোবর্ধন ঘরে ঢুকল,-- “এই যে শরবৎএকনাথ ক্টমট করে তার পানে তাকালেন, “শরবৎ আনা হয়েছে ? ক'টা বেজেছে তার হিসেব আছে ?''আস্ঞে দাতট।'তাহলে আফিম কখন দেওয়া হবে ? তোমাকে রোজ মনে করিয়ে দেবার জন্যে কি আর একটা চাকর রাখতে হবে 1খাটের পাশে টিপাইয়ের ওপর শরবৎ রেখে গোবর্ধন ছুটে গেল ঘরের কোণে একটি মেজের দিকে crate খুলে একটি টাদির আফিমের কৌটো নিয়ে ছুটে এসে একনাথের সামনে দাড়াল। কোৌটো খুলে একনাথ আফিমের গুলি পাকাতে লাগলেন | সঙ্গে সঙ্গে ভার বাক্যবাণ ছুটল ৷ গোবর্ধন আবার শরবৎ হাতে নিয়ে কাঠের পুতুলের মতন দাড়িয়ে রইল |একনাথ আফিমের গুলি মুখে ফেললেন, শরবতের সাহায্যে সেটি গলাধঃকরণ করলেন, তারপর গেলাস ফেরত দিয়ে বললেন, ডাক্তার হতভাগা গেল কোথায় ? কেউ তার থবর জানে 1গোবর্ধন আফিমের কৌটো যথাস্থানে রাখতে রাখতে বলল,-_ 'আস্ঞে তিনি তো পনের দিনের ছুটি নিয়ে বাইরে গেছেন, আজ ফেরবার কথা ।'একনাথ বললেন, _'আজ যদি না ফেরে ডাক্তারকে জবাব দেব। আমি বাতের যন্ত্রণায় মরছি, আর তিনি গায়ে ফু দিয়ে ফুতি করে বেড়াচ্ছেন। অমন ডাক্তারে আমার দরকার নেই“আজ্ঞে কর্তা ।”‘ape, তুমি বেরোও এখন ।'গোবর্ধন ঝটিতে শরবতের গেলাস মিয়ে প্রস্থান করল।বারান্দায় একজন চাকর ab দিচ্ছিল, গোবর্ধন চোখ পাকিয়ে তাকে MA করল,-_'কর্তাবাবু বাতের যন্ত্রণায় মরছেন, আর তুই tT দিচ্ছিল ? এত বড় আস্পর্য! ! যা! তোকে জবাব দিলাম-_* সে প্রভুত্ব-১৬



Leave a Comment