বনগরবাড়ী | Bangarwadi

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ধাবিয়ে দিচ্ছে। কখনও চোখে পড়ে মালভূমির নীচের ঝোপ- ঝাড়ের সবুজ Al নয়ত চারদিক পাথর আর মুড়িতে wal পাহাড়ি জমি । sala, ফুল, আর বাবলা গাছের ঝোপের মধ্য দিয়ে চলে গেছে কোথাও চওড়া বা ক্কোথাও সরু গরুরগাড়ি যাবার পথ। কোথাও পথ ভরি ধুলো, কোথাও বা পাথর বিছানো |ধীরে ধীরে স্থর্য মাথার ওপর উঠল । ভোরবেলা যে মালভূমিকে শান্ত সৌম্য বলে মনে হচ্ছিল, WA প্রধর আলোয় এখন আর তার দিকে তাকানো যায় না।ভোরের পাখিদের কোলাহল এখন আর শোনা যাচ্ছে না। SATE কখনও ধুসর রঙের চড়াই পাখি ওপরে উঠে তাঁরের মত মাটিতে ছেঁ৷ মেরে আবার ওপরে উড়ে যাচ্ছে। কোমল faaa স্তরে পাখিটা ডেকে চলছিল aca হচ্ছিল ও কী ভীষণ একা! হঠাৎ একটা উড়ন্ত বাজকে দেখে পাখিগুলে৷ ভীষণ চিৎকার ae কয়ে দিল।ছুপাশে এখন কোথাও কালে৷ কোথাও লাল মাটি। লাঙ্গল দেওয়া! হয়ে গিয়েছে। কোথাও পতিত অনাবাদি জমি স্থর্ধের তাপে ফেটে চৌচির হয়ে রয়েছে। জায়গায় জায়গায় ফাটল এত বড় যে হাটু পর্যন্ত বসে যায়। মনে হল জমি যখন চোখে পড়েছে তখন কাছাকাছি কোথাও গ্রাম নিশ্চয়ই আছে । কিন্তু এদিক ওদিক তাকিয়ে বাড়ি দূরে থাক একটা কুঁড়েও চোখে পড়ল না। রোদের উত্তাপ ক্রমশ প্রখর হয়ে উঠল । সকালবেলা! যে ধুলোকে এক তাল ঠাণ্ডা কাদার মত লাগছিল, এখন তা গরমে তেতে উঠেছে | আমার মাথার ওপর একদল মাছি এসে ভন্‌ ভন্‌ করতে Ys4



Leave a Comment