মানুষ খুন করে কেন [খণ্ড-১-৪] | Manush Khun Kare Keno [Vol. 1-4]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
বাধ্য হয়েছে যে আত্মীয়তা ব্যাপারটা ক্রমেই তার বোধগম্য- তার বাইরে চলে যাচ্ছে। বাপকেই পাঁচ-ছ বছরের পর দেখেনি টগর, গোলাপকে তো জন্মেও না, বিজয়ার চিঠি ছাড়া কোনো যোগ- WHS নেই, হঠাৎ তার বোনের প্রতি ভালবাস! আসতে পারে কি না এমন প্রশ্নের কোনো SAIS খুঁজতে চায় না অশ্বিনী |পার্টিশনের ওপারে বেণুর গলা শোনা যায়, “আয় রে আমার টাদসোনা 1”ভেতরের ঘর থেকে লুস্থবর Ae ভেসে আসে “a পিউমণণি, এখানে এসো, নইলে খেলা হবে না।” ধাতুর ওপর জলপতনের শব্দে aga কথার ধ্বনি গোলমাল হয়ে যায়, টগর ওঠে “দাড়া cad, আমি ভাত চড়াচ্ছি, গোলাপ আয়, অশ্বিনী জামা-কাপড় বদলে ate 1”“নাও, জামা-কাপড় ছেড়ে এ-ঘরে এসো, সব শোনা ATS” বলে গোবিন্দবাবুও উঠে অন্য ঘরে গেলেন।চারগোবিন্দবাবুর সঙ্গে সঙ্গে অশ্বিনী উঠে দাড়িয়েছিল, চলে যাবার পর সে মালপত্রের দিকে তাকাল ৷ বাড়িতে পরার এক লুডি আছে তার, সেটিই পরবে, নাকি এই প্যান্টটাই পরে থাকবে | লুঙির প্রসঙ্গে হোল্ড. অলের ভেতরটাও সে দেখতে পায়। ওটাও খুলতে হবে। এত বিছানা পাওয়া যাবে cows! একটা CHG BG পাতলা লেপ, একটা তোশক, দুটো aT বালিশ আর খোকনের কিছু কাথা । এ বাড়ির অন্য কোনো ঘরে পা না দিয়েও অশ্বিনী বুঝে ফেলতে পারে ব্যাঙ্কের TSS মাঝারি ধরনের চাকরির ভিত্তিতে তৈরি নিজেদের এই সংসারের সম্পূর্ণতায় তাদের এফান্মবর্তা জীবনের এইসব মালপত্র বেমানান। “স্্যটকেস-ট্রাঙ্ক খুলে দেব নাকি ?” হলুদে লাল কাজ্জের পর্দার ১২



Leave a Comment