মহানায়ক সূর্যসেন ও চট্টগ্রাম বিপ্লব [খণ্ড-১] | Mahanayak Suryasen O Chattagram Biplab [Vol. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
করেও ব্যর্থ হলাম। শেষ পর্যন্ত আমাকে নিয়ে কোতোয়ালী থানারও 3. D. 0-র কাছে উপস্থিত করল। চট্টগ্রাম পুলিশ ও 3. D. ০0-কেও ছার মানতে হোল । তারাও আমার পরিচয় জানতে পারলেন না। আমাকে জেল-হাজতে পাঠানো হোল। নাগাবখাদা যুদ্ধের পর এই প্রথম মাস্টারদার ও অস্বিকাদাব সঙ্গে দেখা। তারা ছুটি সেলে বিশেষ জেল-গপ্রহরায় আবদ্ধ ছিলেন। স্নানের সময প্রহরায় রত জেল মেপাইয়ের অনুগ্রহে দু'চার মিনিটের জন্য তাদের সঙ্গে এই গোপন সাক্ষাৎ। মাস্টারদাদেব কুশল সংবাদাদি নিলাম এবং Stay আমার কাছ থেকে বাইরের সাংগঠনিক অবস্থার দু একটি মূল বিষয় এইটুকু সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে জেনে নিলেন এবং জেলে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিবাদে লিপ্ত না হতে ও মাময়িক প্রয়োজনের খাতিবে সদ্ভাব বজায় রেখে চলবার জন্য আমাকে উপদেশ দিলেন |জেলে আমায় তিন চার ঘণ্টার মধ্যেই cafe আমার বাড়ি থেকে জামা-কাপড, বিছানাপত্র ও টিফিন বাক্সে মধ্যাহু ভোজনেব আহার এসে গেছে। এখানেই আমার আম্মগোপনের ড্রামার যবনিকাপাত।ave মাস ধরে আমাদের তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা চল্ল ৷ দেশপ্রিয় যলীল্দ্রমোহন প্রভৃতি প্রখ্যাত ব্যারিস্টারবুন্দ মামলায় আমাদের পক্ষে সওয়াল জবাব করলেন। “নাগারখানা” পাহাড়ের উপর মাস্টামদা ও অস্বিকাদা গুলিবিদ্ধ অনস্বায় রন্দী হয়েছেন, আমাকেও বহু সাক্ষী সনাক্ত করেছে। কাজেই আমাদের যানচ্গীবন কারাদণ্ড অনিবার্ধ বলেই ধরে নিয়েছিলাম। RN Bly জেলে বাস করার সময় আমাদের নেই-_সেজন্ত আমরা প্রস্তুত ও ছিলাম না! তাই জেল থেকে প্রাচীর টপ.কে উধাও হওযার উদ্দেষ্যে আমরা গোপন পথে জেলের মধ্যে বোমা-পিস্তল আনালাম এবং জেলের অতান্তর্বে মামাদ্বের তিনটি সেলের দরজায় যে তালা ব্যবহৃত হত সেই তিনটি তালার চাবিও যোগাড করলাম। পুরোদত্তর মামলা চলা কালে যখন আমরা! জ্জেলভাঙ্গার ষড়যন্ত্রে একাগ্রভাবে লিপ্ত তখন সাবন্ম্পেক্টার aye রায় প্রেমানন্দের গুলিতে প্রাণত্যাগ করেন। এই সাবইন্স্পেক্টরই গ্রেফতার করেছিলেন।প্রেমানন্দও বন্দী হয়ে জেলে এল । ART রায় মৃত্যুকালীন জবানবন্দীতে প্রেমানন্দের নামোল্লেখ করেন।প্রেমানন্দের বিরুদ্ধে যথারীতি মামলা রুজু আমাদের বিরুদ্ধে যে তিনটি মামল| চলছিল, তার মধ্যে প্রধানতমটিকে জুরীর বিচারে আমরা তিনজন১২



Leave a Comment