বাংলা দেশের ইতিহাস (মধ্যযুগ) [খণ্ড-২] [সংস্করণ-১] | Bangla Desher Itihas (madhyajug) [Vol.2] [Ed. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
বাংলায় মুসলিম অধিকারের প্রতিষ্ঠা €Sata অল্পদিন পরেই তিনি পরলোকগমন করিলেন | ( ৬০২ হিঃস১২০৫-*৬ Be ) কেহ কেহ বলেন যে বখতিয়ারের aor নারানম-কোই-র শাসনকর্তা আলী মর্দান তাঁহাকে হত্যা করেন। তিব্বত অভিযানের মত অসম্ভব কাজে হাত না দিলে হয়ত এত AE বথতিয়ারের এক্ূপ পরিণতি হইত না।২। ইজ্জুদ্দীন মুহম্মদ শিরান খিলজীইজ্জুদ্দীন মুহম্মদ শিরান খিলজী ও তাঁহার ভ্রাতা আহমদ শিরান বখতিয়ার খিলজীর was ছিলেন। বখতিয়ার তিব্বত অভিযানে যাত্রা করিবার পূর্বে এই "দুই ভ্রাতাকে লখনোর ও জাজনগর আক্রমণ করিতে পাঠাইয়াছিলেন । তিব্বত হইতে বখতিয়ারের প্রত্যাবর্তনের সময় মুহম্মদ শিরান জাজনগরে ছিলেন। বধতিয়ারের তিব্বত অভিযানের ব্যর্থতার কথা শুনিয়| তিনি দেবকোটে প্রত্যাবর্তন করিলেন। ইতিমধ্যে বখতিয়ার পরলোকগমন করিয়াছিলেন | তখন মুহম্মদ শিরান প্রথমে নারান-কোই আক্রমণ করিয়া৷ আলী মর্দানকে পরাস্ত ও বন্দী করিলেন এবং crates ফিরিয়। আসিয়া নিজেকে বখতিয়ারের উত্তরাধিকারী ঘোষণা করিলেন। এদিকে আলী মর্দান কারাগার হইতে পলায়ন করিয়া দিল্লীতে স্থলতান কুতবুদ্জীন আইবকের শরণাপন্ন হইলেন | কায়েমাজ রুমী নামে কুংবুদ্দীনের জনৈক মেনাপতি এই সময়ে অযোধ্যায় ছিলেন, তাঁহাকে কুংবুদ্দীন লখনৌতি আক্রমণ করিতে বলিলেন। কায়েমাজ লখনৌতি রাজ্যে পৌদছ্ছিয়৷ অনেক খিলজী আমীরকে হাত করিয়] ফেলিলেন। বখতিয়ারের বিশিষ্ট অনুচর, গাঙ্গুরীর জায়গীরদবার হসামুদ্দীন ইউয়জ অগ্রসর হইয়া কায়েমাজকে স্বাগত জানাইলেন এবং তাঁহাকে সঙ্গে করিয়া দেবকোটে লইয়া গেলেন । মুহম্মদ শিরান তখন কায়েমাজের সহিত যুদ্ধ না Shan দেবকোট হইতে পলাইয়৷ গেলেন। অতঃপর কায়েমাজ হমামুদ্দীনকে দেবকোটের কর্তৃত্ব দান করিলেন। কিন্তু কায়েমাজ অযোধ্যায় প্রত্যাবর্তন করিলে মুহম্মদ শিরান এবং তাঁহার দলভুক্ত খিলজী আমীররা দেবচকাট আক্রমণের উদ্যোগ করিতে লাগিলেন।এই সংবাদ পাইয়া কায়েমাজ আবার ফিরিয়া আসিলেন। তখন তাঁহার সহিত মুহম্মদ শিরান ও তাঁহার অনহচরদের যুদ্ধ হইল । এই যুদ্ধে Teme শিরান ও তাঁহার দলের লোকেরা পরাজিত হইয়া weal এবং সম্তোষের দিকে পলায়ন



Leave a Comment