আলকাপ | Alkap

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
কাপটিতে জমিদারের স্বেচ্ছাচারিতা, শাস্তির ভয়, প্রজাদের উপর দমন- পীড়ন, জমিদার শ্রেণীর fax রূপকেই পরিস্ফুট করে। অত্যাচারী- স্বেচ্ছাচারী জমিদারকে জমিদারি থেকে উচ্ছেদ করে অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এই ধরনের ঘটনার বাস্তবিক ভিত্তি নিয়ে প্রশ্ন জাগা স্বাভাবিক। বাস্তবে এই ঘটনা ঘটা হয়ত সম্ভব নয়, কিন্তু লোকশিল্পীরা সমাজের দরিদ্র ও অস্ত্যজ শ্রেণীর মানুষ৷ তারা জমিদারের দ্বারা নানাভাবে নিপীড়িত, অত্যাচারিত হন, প্রত্যক্ষভাবে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার ক্ষমতা তাদের নেই, তাই তাদের প্রতিবাদী মন তাদের শিল্প কর্মের মধ্যে প্রতিবাদ জানিয়ে, প্রতিশোধ নিয়ে ইচ্ছাপূরণ ঘটিয়েছে। বহুল প্রচলিত 'নাককাটা রাজা ও টুনটুনি'-র গল্পটিও এই বক্তব্যের সারবত্তা প্রমাণ করে।বন্ধন মারা কাপগায়ের মোড়ল দুঃখীরামের গোরুটাকে জমিতে ফসল খাবার অপরাধে হত্যা করে ফেলে। মনের দুঃখ চেপে রেখে years চামড়াটাকে বিক্রি করে কিছু পয়সা পাবে ভেবে হাটে বিক্রি করতে যায়। কিন্তু চামড়াটা বিক্রি হয়নি। বাধ্য হয়ে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে! রাস্তায় আসতে আসতে AR হয়ে গেলে মাঠের মাঝখানে এক বিরাট বটগাছ তলায় উঠে পড়ে এবং একটা ডালের সঙ্গে নিজেকে গামছায় বেঁধে বিশ্রাম নিতে থাকে। গভীর রাতে সেই গাছতলায় কয়েকজন চোর চুরি করে এনে গাছতলায় ভাগ করতে থাকে। সেই সময় হঠাৎ গোরুর চামড়ায় হাত লেগে শব্দ করে গাছের উপর থেকে পড়ে যায়। চোরেরা VS ভেবে প্রাণের দায়ে সবকিছু ছেড়ে পালিয়ে যায়। দুঃখীরাম অতি ভোরে গাছ থেকে নেমে সব টাকা পয়সা নিয়ে বাড়ি চলে আসে। লোভী মোড়ল ঘটনাটা জানতে পেরে একই উপায়ে টাকা পাবার জন্য BA বাড়ির সবকটা গোরুকে কেটে তার চামড়া নিয়ে একইভাবে গাছে উঠে ACH! কিন্তু সে চোরদের হাতে পিটুনি খেয়ে ঘরে ফিরে আসে। তখন রাগে মোড়ল দুঃবীরামের বাড়ি পুড়িয়ে দেয়। Ysera আবার ভাগ্যচঞ্তে ছাইয়ের বিনিময়ে qe সোনা-৪



Leave a Comment