সংবাদপত্রে সেকালের কথা [খণ্ড-১] [সংস্করণ-৩] | Sangbad Patre Sekaler Katha [Vol. 1] [Ed. 3]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ke সংবাদপত্রে সেকালের কথা১ এই পুপ্তকের প্রথম অংশ শিক্ষা-বিষয়ক। পাশ্চাত্য ধরণে স্কুল-কলেঙ্গ প্রতিষ্ঠা, পাঠ্য পুস্তক প্রণয়ন ও প্রকাশ ছাঁরা লোকের মধ্যে শিক্ষার বিস্তার উনবিংশ শতাব্দীর প্রথম ভাগের একটা বড় কাজ । এই শিক্ষার ভিতর দিয়াই এদেশে সর্ব্বপ্রথম ইউরোপীয় প্রভাবের বিস্তার হয় এবং তাহার ফলে ও সামাজিক আচার-ব্যবহার সংস্কার করিবার ইচ্ছা ঢেখা দেয়, নূতন বাংলা-সাহিত্যেরও ee হয়। যে-সকল প্রতিষ্ঠানের চেষ্টায় ও প্রভাবে ইউরোপীয় সাহিত্য-দরশন-বিজ্ঞানের সহিত বাঙালীর পরিচয় হয়, হিন্দুকলেজ, কলিকাতা স্কুল-বুক সোসাইটি ও কলিকাতা স্কুল সোসাইটি উহাদের মধ্যে প্রধান । এই HVAC এই তিনটার wees অনেক জ্ঞাতব্য তথ্য পাওয়া যাইবে । এই যুগেই আবার স্বীশিক্ষার জন্ত আন্দোলনও আরম্ভ হয়। তখন NP কত-দূর অগ্রসর হইয়াছিল ও বালিকাদের শিক্ষার জন্য কি ব্যবস্থা ছিল, ১২-১৭ পৃষ্ঠায় মুদ্বিত সংবাদগুলিতে তাহার বিবরণ আছে। উনন্তিশ শতাব্দীর প্রথম ভাগের শিক্ষাবিস্তার-প্রয়াস শুধু স্কুল-কলেজ প্রতিষ্ঠার মধ্যেই আবদ্ধ থাকে নাই। প্রাতবয়স্কের| এবং যাহারা স্কুল কলেজের শিক্ষা সমাপন করিয়াছেন, তাঁহারা যাহাতে পরজীবমের জ্ঞানচচ্চা করিতে পারেন, তাহার জন্য একটি ata বা সোসাইটি স্থাপিত হইয়াছিল। উহার নাম গৌড়ীয় atte) এই সমাজের কার্যকলাপের সংবাদ ৮-১২ পৃষ্ঠায় পাওয়া যাইবে | ইংরেজী শিক্ষার বিস্তার যেমন উনবিংশ শতাব্দীর শিক্ষাগ্রচার-চেষ্টার একটি দিক্‌, তেমনই হিন্দুদ্বের as সংস্কৃত শিক্ষার ও মুসলমানদের জন্য আরবী-ফারসী শিক্ষার ব্যবস্থা উহার আর একটি দিক্‌ । এই দুইটি দিকেই সরকারের স্বার্থ ae feat এক দিকে তাহাদের ইংরেজী-শিক্ষিত কর্মচারীর ও কেরাণীর আবশ্যক ছিল, আর এক দিকে হিন্দু ও মুসলমান উত্তরাধিকার ও অন্তান্ত আইন ব্যাখ্যা করিবার eT পণ্ডিত ও মৌলবীর প্রয়োজন fear) cay সরকার হইতে ইংরেজী শিক্ষার যেমন MINT করা হইত, তেমনই আবার সংস্কৃত ও ফারসী শিক্ষারও ব্যবস্থা কর হইয়াছিল । প্রধানতঃ এই Sees? কলিকাতায় Wai ও WES কলেজ স্থাপিত ea) এই gel প্রতিষ্ঠানেরই বিবরণ “সমাচার দপণে' প্রকাশিত হইয়াছিল ও এই ayy উদ্ধৃত হইয়াছে। সংস্কৃত শিক্ষার aD সংস্কৃত কলেজ ছাঁড়া প্রাচীন ধরণের TE চতুমন্পাঠীও এদেশে ছিল ৷ এই সকল OPA বিবরণও এই সন্ধলনে উদ্ধৃত করিয়াছি। এই বিবরণ- গুলির ও সেকালের পণ্ডিতদের কথা ( পৃ. ৩৭-৪৮) একসঙ্গে পড়িলে উনবিংশ শতাঝীর প্রথম ভাগে এদেশে সংস্কৃত চচ্চা কিরূপ হইত, তাহার কতকটা আডভাস.পাওয়া যাইবে | শিক্ষা-বিষয়ক যে-গকল সংবাদ এই সন্কলনে উদ্ধৃত হইল, তাহা হইতে আর একটি বিধয়ও পরিষ্কার বুঝা যায়। তাহা এই,--এদেশে শিক্ষাবিস্তারের জন্য গোড়ার দিকে ঈষ্ট ইণ্ডয়া কোম্পানী বা সরকার বিশেষ চেষ্টা বা অর্থব্যয় করেন;ুনাই। জনসাধারণের শিক্ষার উন্নতির ay cok করিয়াছিলেন প্রধানত: এদেশীয় কয়েকজন গণ্যমান্ধ লোক, বে-মরকারী লাহেব ও বিদ্বেশী মিশনরী। হিম্চমুকলেজের প্রতিষ্ঠা প্রথমতঃ এদেশের লোকদের দ্বারাই হইয়াছিল। Whos জন্যও এদেশেরই একজন স্ৃত্বামী--রাজ৷ বৈদ্তনাধ রায় বিশ হাজার টাক| দান করেন (পৃ. ১৫)। শিক্ষাবিস্তারে অষ্টান্তের vice কথা



Leave a Comment