সিংহাসন, তুমি কার | Simhasan, Tumi Kaar

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ওঠে AC কয়লার Bory ওপর নিঃঝুম কুকুরটাকে she একটা লাথি কষিয়ে, দাড়িপাল্ল। থেকে বাটখারা নামিয়ে ছড়মুড় করে বিষ্ট, এগিয়ে আগে। হারুকে চেনে না এমন মনিষ্যি এ পাড়ায় একটা নেই । বিরাট নিংহাসনটা দেখে সকলেরই চোখ ছানাবড়। | বিস্ময়ে প্রশংসায় কারুর মুখে কথাটি নেই | সকলেই নানা মতলব দিতে শুরু করল হারুকে, হারু যে তাদের আপনজন | কেউ কেউ আবার তাতাচ্ছে ate নিজেই যাতে ওটা কলকা তা নিয়ে গিয়ে ছশো-মাড়াইশে৷ টাকায় বিক্রি করে। ste নিজের গেলাম ভরে আর মিটিমিটি হাসে । এখন আর ওর চোখে কোথাও ধুমকেতু নেই । গলায় মদের মরণ QM ঢেলে বলে,qm, রাজোর পাগলের পাল্লায় পড়। গেছে। আরে এখন আর কিছুই হবার নয়। বায়নার টাক খেয়ে বসে আছি cll এখন ACH তাকে বেচ ব বললেই হল!বিষ্টা আগের মতোই কাঠগৌয়ার আছে । হারুর হাতে একটা ঝাকানি দিয়ে বলে-_হবে না| বললেই হল? তুমি কি যে বল হারুন], বায়নার টাকা gfe ফেরত দেওয়া যায় না?ut তেরি, “ter মানুষের কথার একটা দাম নেই বুঝি । একি তোর কয়লার ডিপো পেয়েছিদ। আমি আজ উঠি, তোরা বোস । সবাই একসঙ্গে হাহা করে ওঠে i ছুতিনটে tet ঝাঝালে গেলাস যেন ভোজবাজ্ির মতো হারাধনের সামনে জমে যায়। বন্ধুত্বের দুর নৌকোে৷ ভেসে আসা পীত আলো, অস্তিত্ব বনাম ভালোবাসার কিছু অস্থায়ী ধাধ। আর পরমাস্মীয় নেশার জমাট স্থাপত্যে ate হারাধন তখন যেন নিজের সেই শিল্পী মনটা নিশ্চিতভাবে ফিরে পাচ্ছে যেখানে সে একাই ঈশ্বর। চিতকার করে কাকে একটা কি বলতে যাচ্ছিল | eat নড়র পড়ল এক বোতল কেরোসিন আর একটা এক পাউণ্ডের awl রুটি বগলে তার সেই মামা শ্বপ্তর প্রহলাদ ওরফে পাল ঘোষ তাদের পাশ কাটিয়ে হনহনিয়ে অস্ধকারে মটকে পড়ার তাক করছে। আর ষায় কোথা | একটা বাজপাখীর ভারি ডানায় হারু দ্রুত পিছু নেয়। বয়ে হলেও বেশ গাট্ট/গোটট৷ চেহারা ten ঘোষের । মোটেই ভয় পাবার মতো মানুষ নয়। তবু একদম ঘাড়ের কাছে বাজখাই গলায় ‘aty ডাক শুনে মানুষটার বুকটা একটু Ms করে উঠল। পেছু ফেরবার আগেই হারু প্যালা ঘোষকে ডিঙ্গিয়ে ঠিক তার সামনে বিরাট মালগাঁড়ির মতে রাস্ত। জুড়ে উবু হয়ে বসে পড়ে |১৬



Leave a Comment