গীতা-পরিচয় [সংস্করণ-২] | Gita-Parichay [Ed. 2]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
- দীতা-পরিচয়। ৭অনুসারে চলিতে হয়; নতুবা আশ্রয় গ্রহণটা মৌখিক | : যদি প্রীগীতার আশ্রয় লইতে হয়, তবে শ্লীগীতার অভিপ্রায় অন্ন্সারে কার্য্য করাই কর্তব্য। Avsaat- CAA অনুগ্রহ অনুভব করিতে হইলেও, Stata states sth করা কর্তব্য । কোথায় তাঁহার আজ্ঞা পাওয়া যাইবে যদি জিজ্ঞাসা করাযায়, তবে বলিতে হয়, বেদে পাওয়া যায় ; অধ্যাত্মশান্ত্রমাত্রেই পাওয়া যায়। গীতার মত পুস্তকে বিশেষরূপে পাওয়া যায়। গীতা-শান্ত্র হইতে ল্রীভগবানের atatefa বাছিয়া লইয়া যিনি যেটি পালন - করিতে পারেন THD প্রাণপণ করুন; প্রীগীতার অনুগ্রহ যে বুঝিতে পারিবেন এ বিষয়ে বিন্দুমাত্রও সন্দেহ নাই। গীতাগ্রন্থকে মানুষের মত জীবন্ত মনে করিয়া সম্বোধন করা হইয়াছে। অনেকে মনে ভাবিতে পারেন ইহা কি প্রকার ভক্তি? পুস্তক আবার মানুষের মত কিন্নুপে হইবে ? আবার কেহ কেহ ইহা সত্যও ভাবিতে পারেন। “গীতা মে হৃদয়ং পার্থ”। যাহা শ্রীভগবানের ana তাহা জড় বলিয়া নাই ভাবা হইল-_ ইহাতে কি কিছু অতিরঞ্জিত আছে ? মানুষের হস্ত পদ চক্ষু sift অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ জড়; এইগুলিকে মানুষ বলা হয় না। স্থল আবরণগুলিকে জীবন্ত করিয়| যে চৈতন্ত পুক্ল্ষ বিরাজিত, তিনিই মানুষ। জড় অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অবলম্বন করিয়াই তিনি প্রকাশ পাইয়া! acer) গীতা- গ্রন্থের অক্ষর গুলিকে শব্দমাত্র বলা হইলেও সেই শবরাশির অর্থ দ্বারা যে আত্ম- দেব প্রকাশিত তিনিই Atel 1 ইনিই সমকালে অক্ষর বা অব্যক্ত বা নিগুণ ব্রহ্ম, ইনিই Hes ব্রহ্ম বা fata, BAS মায়ামানুষ বা মায়া-মান্যী,ইনিই প্রতি জীবের আত্মা । জড় আঁবরণটি মায়া, ভিতরের হৃদয়টিই আত্মদেব বা আত্মদেবী। এই আত্মদেব বা আত্মদেবীর নাম HATE শাস্ত্র বলিতেছেন s— গীতা নামানি বন্ষ্যামি গুহানি শৃণু thes কীর্তনাৎ সর্বপাপানি বিলয়ং যাস্তি তৎক্ষণাৎ ॥ গঙ্গা! গীতা চ সাবিত্রী সীতা Aen পতিত্রতা। ব্রম্মাবলিব্র'মবিদ্তা ত্রিসন্ধ্যা মুক্তিগেহিনী ॥ অর্ধমাত্রা চিদানন্দা Saal ভ্রাত্তিনাশিনী। বেদেত্ররী পরানগ্গা তত্বার্থজ্ঞানমঞ্জরী ॥ ৷ ইত্যেতানি জপন্নিত্যং নরো৷ নিশ্চল-মানমঃ। জ্ঞানসিদ্ধিং লভেন্নিত্যং তথাংস্তে পরমং পদম্‌ ॥



Leave a Comment