তত্ত্ববোধিনীপত্রিকা [ভাগ-১] | Tattwabodhini Patrika [Pt. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
taniখ ১৮২৯১১দে ee ee মাত আত সর চা মানা মামা মা মামা মামা মাজন মারহাট্ট। কবির রচন| দেখিতে পাওয়া যায় ; SXtewa নাম নামদেব ও ত্রিলোচন। কবির ও ফরিদের অনেক অমূল্য উক্তিও এই আদি-গ্রদ্থে স্থান পাইয়াছে। নানক-প্রব- foe শিখধর্মের সঙ্গে গোবিন্দ বা দশম- em গোবিন্দ সিংহের নামের ঘনিষ্ঠতম যোগ । গোবিন্দের বয়স ১৫ বৎসর, যখন Stata পিতা সম্রাট আরঙ্গজেব কর্তৃক নির্দয়-রূপে নিহত হয়েন। বালক গোবিন্দ পার্বত্য-প্রদেশে পলায়ন করিয়৷ শিক্ষ- লাভ করিতে লাগিলেন । কাল ক্রমে পাশী হিন্দী ও সংস্কৃত ভাষায় তাহার অভিজ্ঞত] জনঙ্মিল। ৩০ বৎসর বয়স হইতেই তিনি অদম্য-উৎসাহ প্রখর বুদ্ধি ও স্থির লক্ষ্যের সহিত সমগ্র বিচ্ছিন্ন শিখ-সমাজকে Aces অ!নিবার way সচেষ্ট হইলেন । তিনি নিজে বীর ও অস্ত্রনিপুণ ছিলেন। পঞ্জাবে |কিসে মুসলমান শক্তির ধ্বংস হয়, কিসে | পিতৃ-হত্যার প্রতিশোধ সাধিত হয়, মেই |দিকেই তাহার দৃষ্টি পড়িল। তাহাকে শিখ- গণ নেতৃত্বে স্বীকার করিল। কার্যে প্রবৃত্ত হইবার পূর্বে দুর্গাদেবীর পূজা far তাহার প্রসাদ ভিক্ষার জন্য গোবিন্দ নয়না- দেবীর পর্বতে গমন করিলেন। গোবি- ন্দের ভক্তি ও একান্তেকতা Yo প্রসঙ্গ হইয়া, কখিত আছে, দেবী তাহার নিকট আবিভূত হইয়া নররক্ত চাহিলেন। গোবিন্দ মনুষ্য শোখণিতে দেবীর প্রসম্নতা লাভ করিয়। শিখগণকে সামরিক জাতিতে পরি- গত করিবার জন্য yas হইলেন, ও সকলকে পাহুল বা দীক্ষা দিতে আরম্ভ করিলেন । জলে শর্কর| গুলিয়া তরবারির অগ্রভাগ fra আলোড়িত করিয়া এ জল দীক্ষার্থার দেহ-মস্তকে সিঞ্চন করিয়া ও কিয়দংশ তাহাকে পান করাইয়া ante হইতে-অংশ বিশেষ পাঠাস্ডে দীক্ষ৷ কার্যসমাধা হইত ৷ দীক্ষান্তে গুরু-শিষ্য উভয়- কেই “ওয়া গুরুজি কি খালসা” “গুরু অর্থ।ৎ ঈশ্বরের খালসার জয়হউক” একথ। সজোরে উচ্চারণ করিতে হইত । (খালস। শব্দের অর্থ ডাক্তার থপের মতে সাধারণ Sa (common wealth. ) |গুরু-গোবিন্দ প্রথমতঃ পাঁচ জনকে দীক্ষা দিয়া বলিলেন, এই পাঁচজন fafera যে মণ্ডলী হইল, ইহার ভিতরে আমার arm বিচরণ করিবে । তিনি দীক্ষা! দিয়া নিজেকে দীক্ষিত হইবার জন্য তাহাদিগকে অনুরোধ করিলেন এবং নিজে দীক্ষিত হইয়া স্বয়ং সিং এই উপাধি গ্রহণ করি- লেন।নানক-প্রবর্তিত শিখ-ধর্মকে মিজমতের | অনুরূপ Slaw লইবার জন্য এক্ষণে গুরু- ৷ গোবিন্দের প্রয়াস হইল। “আদি গ্রন্থ” এই সময়ে গুরু রামদাসের বংশাবলীর নিকট কর্তারপুরেই থাকিত | গুরু-গোবিন্দ এঁ আদি-গ্রন্থ তাহাদ্িগের নিকট হইতেcare করিয়। নিজ-মত Bars সংঘযোদজ্জিতত করিতে চাহিলে অদিগ্রন্থরক্ষকের৷ কিছু- তেই সম্মত হইল না। অধিকল্ত যখন তাহারা বুঝিল যে নানক-প্রবর্তেত-ধর্শ্মের jay ভিতরে ইতর-লোক-দকলকে আনি- বার চেষ্টা হইতেছে, তখন তাহারা গোবিন্দকে গুরু বলিয়| মানিতে অস্বীকার করিল। বলিল যদি গোবিন্দ গুরু হইতে চাহেন, তিনি স্বতন্ত্র ধর্-ত্রন্থ স্বয়ং রচন1 করিতে পারেন। গোবিন্দ উপায়াস্তর a দ্বেখিয়৷ ্রন্থ-সন্কলনে প্রবৃত্ত হইলেন এবং নিজমত ১৬৯৬ es অৰ্দে হিন্দী কবিগণের সাহায্যে শান্ত্রাকারে প্রকাশ করিলেন। রাব।-নানকের প্রবর্তিত মত বিপর্যস্ত বা. পরিবর্তিত কর! গুরু-গোবিন্দের অভিপ্রাত্ত ছিল না, কিন্তু শিখজাতিকে উত্তেজিতSS nape



Leave a Comment