কণ্ঠমালা [সংস্করণ-৩] | Kanthamala [Ed. 3]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ক্ঠমালা। 4 তৃতীয় পরিচ্ছেদপরদিন প্রাতে প্রাঙ্গণপার্্কবে বসিয়া বিনোদবাবু মুখ প্রক্ষালন করিতেছেন, এমন সময় দুইজন কনেষ্টবল আসিয়া খিড়.কিছ্ধারে দাড়াইল। সেই সঙ্গে অপর দ্বার দিয়া আর কতকঙগুলিন কনেষ্টবল ও পুলিষ-দারোগা, গোপালবাবু, বিলাসবাবু প্রভৃতি আসিলেন। বিনোদ ইহার, কারণ কিছুই বুঝিতে না পারিয়া, ক্ষণকাল অবাক্‌ হইয়া তাঁহাদের দেখিতে লাগিলেন |দারোগা বলিলেন, “গত Fay পাঁড়ায় একটা চুরি হইয়াছে, নেই চুরির aa অন্নসন্ধান করিতে নামি আপনার বাড়ী আসিয়াছি। গোপালবাবুর বালক রাত্রে ঘরে গেলে গোপালবাবুর পরিবার দেখিলেন, শিশুর গলায় কণ্ঠমাল। নাই। প্রাতে গোপালবাবুর স্ত্রী বাড়া বাড়ী, অন্নদন্ধান করিয়া গিয়াছেন, কঠমালা পান নাই। মহাশয়ের বাঁটীতে সংবাদ পাঠাইয়াছিলেন; আপনার স্ত্রী তাহাতে রাগ প্রকাশ করিয়াছিলেন এবং ছুই একটি গালিও দ্বিয়াছেন। অগত্যা আমি তদন্ত করিতে আমিয়াছি, অতএব বিলম্ব করিবেন না; আপ- নার পরিবার ও দাঁসীকে এই পাকশালায় শীদ্র আসিতে বলুন, আমি একবার এ ঘর অনুসন্ধান করিব ।” বিনোদ বাবু উঠিলেন, একবার গোপালবাবুর দিকে চাহিলেন। গোপালবাবু কিঞ্চিৎ অপ্রতিভ হইয়া বলিলেন, “আমি কি করিব ভাই, চুরি গিয়াছে, পুলিষে জানা- aw হয়, আমি জানাইয়াছি। এতদূর হইবে, অনুভব করিতে পারি নাই”বিনোদের পরিবার পাকশালায় আসিল । দারোগা .প্রথমে SABA, নাউমাচার তলা, afte cafe সকল সন্ধান করিলেন। শেষ সরুলকে সমভিব্যাহারে লইয়া শয়নগৃহে প্রবেশ করিলেন।দারোগা প্রথমে দুই একটি figs পেটারা সন্ধান করিলেন,



Leave a Comment