সেই উজ্জ্বল মুহূর্ত | Sei Ujjwal Muhurta

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
ভ্রমে পড়তেই হবে । মাজিত কচির এই চঞ্চল মেয়েটি তখনও Ste অপ্রতিভ ভাবটা কাটিয়ে উঠতে পারেনি।ডাক্তার শোলাপুরকার বাঙলা বোঝেন, কিন্তু বলেন না। বোধ হয় বাঙালী স্ত্রীর কাছে শেখা ভাষার অপটুতা সম্বন্ধে একটু বেশি সচেতন, তাই গুরুতর ব্যাপারে ইংরেজি ভাষারই শরণ মেন। এবারেও স্ত্রীর মনের উত্তরটা দিলেন সরল ইংরেজিতে £: দেশটাকেও তাই আর থারাপ বলা চলে না তনু, এই দেশেই তো আত্মীয়দের খুঁজে পাওয়া গেল! কী বলেন বিশ্বপতিবাবু !শেষ কথ! কটি বললেন বাঙলায়।আমি তখন রুশ দেশের একখানি রূপকথা নিয়ে ব্যস্ত ছিলুম। বইখানি পুষশ্কিনের রামলান-ই-লুড়মিলা। arate লুডমিলাকে বিয়ে করেছে। আহারের পর লুডমিলা তার স্বামীর সঙ্গে অগ্রসর হতেই সমস্ত আকাশ কালো করে ঝড় উঠল। মেঘের ডাকের সঙ্গে তীক্ষ বিদ্যুৎ আকাশটাকে যেন চিরে ফেলতে লাগল। অনেকক্ষণ পরে যখন ঝড় থামল, লুড়মিলাকে আর খুঁজে পাওয়া! গেল না। বইএর ভাষা ও বলার ভঙ্গী এমন সহজ যে মাঝে মাঝে মনে হয় এই প্রাঞ্জলতার জন্যেই পুস্কিনের সমস্ত রচন| বিভিন্ন বিদেশী ভাষার অনুদিত হতে পারেনি । বই থেকে চোখ না তুলেই ডাক্তারের জবাব দিলুম fae ঠিকই বলেছে। অনেকক্ষণের দাড়ানো গাড়ি হঠাৎ চলতে শুরু করলে সকলেরই প্রাণ বাঁচে নাকি?আমার উত্তর শুনে নিতাই উৎফুল্ল হল সকলের চেয়ে বেশি, তনুর কানের কাছে মুখ এনে কী একটা মন্তব্য করল। প্রন হাসিতে উজ্জ্বল দেখাল তার GA মুখখানা | ”[৩1]



Leave a Comment