বঙ্কিমচন্দ্রের উপন্যাস | Bankim Chandrer Upanyas

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
৬ বন্কিমচন্দ্রের উপন্যাসআরম্ত হর নাই, তারপর ইংরেজী শিক্ষার বিস্তার ও তাহার ফলস্বরূপ সমাজ-বিদ্রোহ ও ব্যক্তির স্বাতন্ত্যা ঘোষণা | AST তাবচিনস্তার আঘাতে প্রাচীন হিন্দ-সমাজে যে ate পড়িয়াছিল-_চারিদিকে ' গেল, গেল * রব উঠিয়াছিল, তাহাতে ঝাঁদ-প্রতিবাদই ছিল মুখ্য, এবং তাহার প্রয়োজনে বহু পত্র-পত্রিকার Cres হইয়াছিল | এ শতাব্দীর ache অতিবাহিত হইবার পর, আমরা এই কয়েকটি প্রধান ঘটনা লক্ষ্য করি :--ধর্শ- সংস্কারে তত্বোধিনী সভার প্রতিষ্ঠা : সমাজ-সংস্কারে বিদ্যাযাগরের বিধবা-বিবাহ-আন্দোলন ; এবং সাহিত্য-সংস্কারে “ শকুস্তলা৷ * ও ' সীতার বনবাসে” র আবির্ভাব এবং তাহারও পরে, TEA যুগান্তকারী কাব্য --€ মেঘনাদবধ *। উহাদের মধ্যে একটিই জাতির স্থায়ী সম্পদ ও আত্মপ্রতিষ্ঠার উপায়রূপে দেখা দিয়াছিল-_-সাহিত্যের পথে বাঙালীর ও নূতন জগতে পদক্ষেপ।আমি পূর্শ্বে বলিয়াছি-_ এ যুগের যতকিছু উৎকণ্ঠা তাহা মুখ্যতঃ মানস-জীবনেই সীমাবদ্ধ ছিল ; যাহা কিছু কর্প্রচেষ্টা, তাহাও বাদামুবাদ, মতপ্রতিষ্ঠ ও তাব-প্চারের অধিক ছিল না ; ইহার কারণ, এ জাগরণ তখনও জাতিগততাবে 2m নাই, এমন কি, সমাজক্কেও-_শহর.অঞ্চল ছাড়া--প্রভাবিত করিতে পারে নাই। সমাজ তখনও নিদ্রিত : বর ইংরেজের স্ুশাসন-কল্পনায় নিশ্চিন্ত ও adits ছিল । abe জাগরণ হইয়াছিল তাহার ফলে, একদিকে যেমন এ ধর্্বতত্র, সমাজ- সংস্কার প্রভৃতি লইয়া atm আদর বাদের আন্দোলন, তেমনই, ata একদিকে, বাঙালী একটি sa সাহিত্যের রসাস্বাদ করিয়া, সেই রস নিজের ভাষায়, নিজের সাহিত্যে পান করিবার জন্য উৎগ্রীব হইয়াছে | মধ্যে shen, পাঁচালী, যাত্রাগান হইতে ঈশ্বর গুপ্তের ববিতায়, বিশেঘ করিয়া, তাঁহার সাহিত্য-প্রীতির নানা নিদশ্‌ নে, সেকালের ইংরেজীনবিশ তরুণেরা বাংলা সাহিত্যের প্রতি আকৃষ্ট ও তাহার সম্বন্ধে আশান্বিত হইয়াছিলেন। ইহার পরে বিদ্যাসাগরের অভিনব ছন্দের গদ্যরচনা এবং মধুসূদনের এ কাব্য,__বেশ একটু আশার কথাই বটে। অতএব, WICH প্রভাব বাঙালীর রস-জীবনে সাড়া জাগাইয়া একটা ন্তন সাহিত্যকেই নবভাবের আধাররূপে গড়িয়া তুলিবে, এমন সম্ভাবনাই দেখা দিয়াছিল। উপরের fre—adts যাহারা ইংরেজ-শাসন ও



Leave a Comment