মার্কিন সুরকারদের জীবনকাহিনী | Markin Surakarder Jibankahini

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
একজন তীর্থবাত্রীর রচনা থেকে জানতে পারা যায় 'তীর্থবাত্রীর সর” Sta) কেমন উপভোগ করেছিলেন। কল্পনা wal চলে, wa তারা যে ফ্লাওয়ারে চেপে ওলন্দাজ বন্দর লিনেন থেকে অকুল সমুদ্রে পাড়ি দিয়েছিলেন অজানা জগতের দিকে, যেখান থেকে ফেরার আশা নেই তখন তাদের মনের অবস্থা! কী ছিল। সাধারণ মানুষদের মত সেই Gaia বন্ধুদের সঙ্গে মিলিত হয়ে বিদায় নিয়েছিলেন । এই সম্পর্কে তাদের মধ্যে একজন লিখেছেন £ 'আমাদের নিয়ে দূরের পথে পাড়ি জমাবার oy জাহাজটি যখন প্রস্তুত, তখন আমাদের ধর্মষযাজকের গৃহে অপেক্ষমান সতীর্থেরা এক মহোৎসবের দ্বারা আমাদের আপ্যায়িত করেছিল। এমন অনেক ধর্মসভা আছে যারাীতনিপুণ , কিন্তু সেদিন সেই বিরাট প্রকোষ্ঠে অশ্ষসিক্ত নয়নে স্তোত্রগান ক'রে শুধু cy আমরা ক্লান্তি অপনোদন ক'রে তৃপ্ত হয়েছিলাম তাই নয়, এর মধুর স্বরমাধূর্ধ আমাদের হৃদয়কে অতুলনীয় আবেগ ও আনন্দে afte করেছিল। সত্যই, তেমন শ্রুতিমধুর সঙ্গীতধ্বনি আর কখনও শ্রুতিগোচর হয় নি ।”তাঁদের মাধ্য নিশ্চয়ই ভাবী অমঙ্গল আশঙ্কা ও সন্দেহ এসেছিল যার থেকে মুক্ত থেকে সাহস সঞ্চয়ের GH তারা! গান করেছিলেন। এর থেকে বোঝা যায়, সংগীতের ভাষা মানবহুৃদয়ে কত আপন ও ঘনিষ্ঠ--এ ভাষা শব্মার্থকেও ভেদ ক'রে যায়।যখন মানুষেরা দেবমুতি পূজা করবার সময় নাচত দেবদেবীর সমক্ষে, সংগীত Sita ছিল তাদের সংস্কারগত। এই জনই প্রাক্তন চার্চের লোকেরা ছন্দে আস্থানীল ছিলেন না, কেননা ক্রিশ্চিয়ান চার্চে নৃত্যকে কোনরকম ধর্মায় অভিব্যক্তি বলে মনে করা হয় না। আমেরিকায় আগত ate মানুষপগুলি যখন দূর-থেকে-ভেসে-আস! ইণ্ডিয়ানদের বাদধধ্বনি গুনতে পেতেন তখন তা নিশ্চয়ই ভয়াল ও বিপজ্জনক মনে হত। দীর্থকাল সংগীতের ভাল ও মন্দ সম্পর্কে সংস্কার অর্জন ক'রে তাঁরা ভুলে গিয়েছিলেন যে, উপজতিদ্ধের মধ্যে SUE হ'ল প্রাকৃতজনের প্রকৃত অভিব্যক্তি-ঠিক শিশুর মতই |বইয়ের অভাবে গানের বাণী দাগানো থাকত এবং প্রচারক ধর্মানুষানের AMA এক একবার একটা বাণী আওড়াতেন, তারা অপেক্ষা করতেন পরেন পংক্তির আশায়। স্বরলিপি শিক্ষার আগের স্তরে এইভাবেই বিদ্যালয়ে গান শেখানে হয় I



Leave a Comment