একমেবাদ্বিতীয়ম [ভাগ-১-২] | Ekamevadvitiyam [Pt. 1-2]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
[১২]wt, ae প্রতি প্রীতি একরূপ, বন্ধুর প্রতি প্রীতি অন্য- at, গুকর প্রতি প্রীতি একরপ, শিষ্যের প্রতি প্রীতি অন্য- রূপ; প্রভুর প্রতি প্রীতি একরপ; ভৃত্যের প্রতি প্রীতি অন্য রূপ: মিত্রের প্রতি প্রীতি একর, শত্রুর প্রতি প্রীতি অন্য- রূপ; স্বদেশের প্রতি প্রীতি একরূপ, সমস্ত জগতের প্রতি প্রতি অন্যরপ; অচেতন প্লদার্থের প্রতি প্রীতি একরপ, সচেতন পদার্থের প্রতি প্রীতি,অন্যরূপ; বিশুদ্ধ প্রীতি এক- রপ, অবিগদ্ধ প্রীতি অন্যরূপ ৷ যেমন জল একই পদার্থ, কিন্তু ভিন্ন ভিন্ন আধারে পতিত হইয়া বিশুদ্ধ কিংবজবিঙদ্ধ আকার' ধারণ করে, প্রাতিও wat ভিন্ন ভিন্ন মনুয্যে ভিন্ন ভিন্ন আকার aft করে। প্রীতির বিশুদ্ধতা রক্ষা! করিবার জন্য আমাদিগের এই কয়েকটী নিয়ম প্রতিপালন কর কর্তব্য ৷ যাঁহাকে আমি ভাল বাঁসি সে অন্যকে ভাল বাসিবে না, কেবল আমাকেই তাল বাঁসিবে, এমন ইচ্ছা করা অন্যায় । অবিহিত ও afaes ইন্দ্রিয়সমুখ উপভোগের tai চরিতার্থ করিবার জন্য etfs করা কর্তব্য নহে। প্রিয় ব্যক্তির অনুরোধে আমা- দিগের vista সঙ্কুচিত করা উচিত হয় না। প্রিয় ব্যক্তিকে সম্পূর্ণ রূপে দোষশুন্য মনে করিয়| ভাহাঁকে আমাদের উপাস্য পৃত্তলিকা করা কর্তব্য নহে । আমাদিগের চিত্তকে কোন মর্ত্য প্রীতি দ্বারা সম্পূর্ণরূপে অধিক্কত হইতে দেওয়া উচিত হয় না। প্রীতির এই সকল নিয়ম প্রতিপালন করিলে আমরা ঈশ্বরকে প্রাতি .করিতে সমর্থ et যদি প্রীতি কি পদার্থ জানিতে ইচ্ছা কর, তবে জীবিতকে জিজ্ঞাসা] কর, জীবন কি পদার্থ ; ঈশ্বরতক্তকে জিজ্ঞাস! কর ঈশ্বর কি পদার্থ। প্রীতি দ্বারা



Leave a Comment