মধুসূদনের কাব্যালংকার ও কবিমানস | Madhusudaner Kabyalankar O Kabimanas

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
সাহিত্যে অলংকার প্রয়োগের মূল TEতেমনি এ জীবনের প্রতিকূল শক্তিগুলোকেও জানিয়েছে মেদিনের মাহ্য বিপরীতভাবের ভজন-পুজন। আদিপর্বের দেবপুজার we যেমন অনয Ci দায় এবং বিচিত্র ভয় ও বিস্ময়, তেমনি আদি সাহিত্যের উপমার প্রেরণারও মূলে এই দায় এবং ভয় ও বিস্ময় ।এই HEAD জীবনের প্রয়োজনেই এসেছে, কথন শ্রাবণের আসার ও ANT জোয়।র-ভাটার লীলা, সাহিত্যের উপমা হয়ে; এরই প্রয়োজনে খতু- প্রঃতির বিচিত্র মূর্তি ধরা দিয়েছে সাহিত্য eta উপ/দানরূপে। আর এ বনের বিচিত্র বাধা বিপত্তির wefre—ay-ael, বজ্পাত, zal, প্লাবন ইত্যাদি প্রন্কতির সমস্ত রুদ্র, রুক্ষ ও বীভৎস মূর্তি-স্বতঃই সভ্যতার এই পর্বের মাছমের অপরিহার্য সাহিত্যিক উপাদান হয়ে উঠেছে। এরাই উপমা-প্রয়োগের FURS | সহজ কথায়, এ যুগের CAT প্রয়োজনবোধের দ্বারা নির্ধারিত ও সীমিত । অপ্রযোজনের আনদ্দ উপলব্ধির মানস-জাগরণ SINS WAT হয়নি। নিসর্গরাজ্যের যেটুকুর মধ্যে মাসুমের অবস্থান, এবং সেখানকার যে রূপগুলির সঙ্গে তাদের ব্যবহারিক জীবনের শুভাগুভের যোগ এঁকাস্তিক, উপমা-দন্ধানের পরিধি মাত্র সেইটুকুই। তাদের না আছে কোন বিশুদ্ধ আনন্দ a সৌন্দর্য-চেতনা, না আছে কল্পনামুখর মনের সুদূর অতীত বা Shwe মানস-অভিযান।সভ্যতার এই aif সাহিত্যের উপমার্ূপে নিসগনূর্তির ব্যবহারে একদিকে যেমন ছিল ব্যবহারিক জীবনের স্বার্থবোধ অন্যদিকে তেমন ছিল, সেদিনের মানুষের দৈব-চেতন]। নিসর্গ জগতের যাঁকিছু বিরাট ও বিস্ময়কর afs, লেদিনের নিসর্গউপাসক arate তাকেই আপনার উপাস্ত, আরাধ্য বলে ধরে নিয়েছে। TE, চন্দ্র, গ্রহ, উপগ্রহ, আকাশ, Sal, সমুদ্র, নদ-নদী--পবই গে মাসযের দৃষ্টিতে ছিল উপাস্ত, আরাধ্য। কাজেই জীবনেও যেমন, সাহিত্যেও তেমনি সৌন্দর্যমহিমার উপস্থাপনায় এরাই আত্মপ্রকাশ করেছে তাদের লেখনীমুখে |আরও একটি সত্য একালের সাহিত্যের উপযাদির চরিত্রবিচারে আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এযুগের সভ্যতার পরিচয় যেমন “ব্বসি-সভ্যতা, তেমনি আরণ্য-সভ্যতাও বটে। ক্কষি-সভ্যতার প্রভাবে sine জীবনের সুত্রে যেমন মুখের ভাষায় ও লাহিত্যের ভাষায় নিরর্শের এই সল মূর্তি এসেছে



Leave a Comment