গল্পসমগ্র [খণ্ড-১] | Galposamagra [Vol. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
মৈত্র সাহেব খবরের কাগজ ওল্টাবার ছলে অধর ভাবে অপেক্ষা করছিলেন কখন উঠবে লোকটা ৷ এবার নিরাশ হয়ে নিজেই উঠে পড়লেন-_'আচ্ছা, আমি তাহলে চাল | আপাঁন কাজ করুন ।*ন্‌:পেনকে বিদায় দেবার পর acer মৈত্বের প্রশ্নটা আবার ফিরে এল সুশোভনবাবযুর মনে | এত বড় বড় কাগজ রয়েছে দেশে, তার ওপরে আবার এই লিটল ম্যাগাঁজনগুলোর কী দরকার > ডিক একই aie দিয়ে বোধ হয় বলা চলে, গঙ্গা SHA পদ্মা দামোদরের অক্বপণ ধারায় প্লাবিত যে দেশ, সেখানে ছোট- খাটো নদীনালা, খালাবলের প্রয়োজন কী ?, উত্তরটা নিজের মনেই দিলেন সংশোভনবাবু- প্রয়োজন আছে, থাকবে এবং ছোট বলেই তারা নিরর্থক নয় । তাদের কাজ আলাদা, CHA আলাদা । সেখানে বড় বড় জাহাজ VITA বা সওদাগাঁর MA এসে ভেড়ে না। তার বদলে ভিড় করে ছোট ছোট জেলোডঙ্গি, হাঁড়িকলাস-বোঝাই কুমোরের নোঁকো, দর স্টেশন থেকে AGATA নিয়ে ফেরা “এক মাল্লাই”।তাদের দু তীর ঘিরে কোন বন্দর নেই, কলকারখানা নেই, ভারী ভারী মাল- MSA ওঠানামার সোরগোল নেই | FSG ঘাটগুলো হুটোপাটি-করে-দ্নান-করা দামাল ছেলেমেয়েদের কল-কোলাহলে TAT | তারই ফাঁকে HAT কলসি-কাঁখে জল নিয়ে যায় ঘোমটা-ঘেরা নতুন বৌ। পড়ন্ত বেলায় গা ধুতে ধ্যতে স্যখ- দুখের থাঁল খুলে দেন Ata sat গন্নীরা |এ সর; খাল কিংবা ছোট নদীটিকে ঘরে ঘন পাঁরচয়ের Aa গাঁথা একটা আলাদা জগৎ ।ছোট ছোট পাঁললকাও তাই । লেখক ও পাঠক মিলে একাঁট স্বজ্পপাঁরসর অন্তরঙ্গ সমাজ | একের সঙ্গে অন্যের সমাদর্শ' ও সমবেদনার বন্ধন |fers নদী বা খাল যত ছোটই হোক, OTS ছোট পাঁরাঁধর মধ্যেই সে আবদ্ধ হয়ে থাকে না। সংকীর্ণ হলেও তার একাঁট নিত্য-বহমানা ধারা আছে, MG আছে | পাঁরাঁচত NCA বাইরে যে জীবন ও জগৎ, তার সঙ্গেও সে যোগ রেখে চলতে চায় | এখানকার বারা নিয়ে যায়, ওখানকার Avot বয়ে Tal আসে |Cella ছোট বেষ্টনীর মধ্যে জন্ম নিল যে ক্ষীণাঙ্গী গ্রাম্য AAs, সেও ধীরে ধারে ননিজের বৃত্তাঁটকে প্রসারিত করে। AACA বৃহত্তর ভাবধারার সঙ্গে নিজেকে মাঁলয়ে দিয়ে Tata দিনে AS হতে চায়, দরের সঙ্গে গড়ে তুলতে sy আত্মীয়তার বন্ধন ।স্‌শোভন রায়ের আরো মনে হল, আগে যা কখনো ভাবেনাঁন, এই চাওয়াটা শ.ধ; এক তরফের, একথা মনে করলে ভুল AA | চাইবার আছে এ তরফেও |এ ছেলে দুৃ্টির মত তাঁদেরও ঝোলা কাঁধে নিয়ে দাঁড়াতে হবে গ্রামের দরজায়. বিনীত কণ্ঠে বলতে হবে, শহর থেকে GTA?’



Leave a Comment