কল্পান্ত | Kalpanta

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
yo. ক্ল্পাস্তকথাটার মানে বুঝে অদৃশ্য হলো অমি। sy faba কাছে গিয়ে বললে বিজ্ঞতার ভঙ্গীতে, এই সেদিন অতবড় কাণ্ডটা হয়ে গেল আবার আজ কোথায় যাবে বল তো ? এবারে কিন্তু পারবো না! আমি বাপু সামলাতে!মিনটু তার গালে একটা মৃদু চড় কষিয়ে বললে, যা যা পাকামি করতে হবে না।চুপচাপ দুজনে দাঁড়িয়ে রইল ।অমি নেবে এলো সিড়ি দিয়ে তার দুহাতে ছুমুঠো কুলের আচার; সে একটা মুঠো eye দিকে এগিয়ে দিয়ে বললে, যাও চিলে কোঠায় বসে খাওগে আমরা এখুনি ফিরে আসছি। 5বাড়ির খিড়কী waren দিয়ে বেরোবার সময় দুজনে খানিকটা কুলের আচার মুখে পুরে ফিরে তাকালে বাড়িটার দিকে,- দেখলে wy চলে গেছে, fafas নিঝুমপুৰী, ভয়ের কারণ নেই ।মিত্তির বাড়ির কিছু দূরেই মারাঠা খালের মুখ গঙ্গার সঙ্গে মিলেছে | অসংখ্য ছোট বড় নৌকো বাংলার বিভিন্ন জেল! থেকে নানা পণ্য নিয়ে এখানে এসে জমা হয়। বৈশাখের দ্বি-প্রহরে নেহাৎ দায়গ্রস্ত না হলে বড একটা কেউ এখানে আসে না। নৌকার মাঝিদেরও এ সময় কদাচিৎ দেখা যায়। দুপুর বেলা শ্রীমান মিনটু Aaa অমির এই স্থানটায় আস! অপরিহার্য কর্ম হয়ে উঠেছিল। নির্জন খালের ধারে এসে কোনদিন তারা দুজনে গাছের ছায়ায় গঙ্গার দিকে চেয়ে cH থাকে, কোনদিন বড় নৌকাগুলোয় বাধ] ছোট ডিঙ্গি একটা গোপনে খুলে নিয়ে লগি ঠেলে খালের মধ্যেই খানিকটা ঘোরাঘুরি করে তাদের জল ভ্রমণের সখ মেটায়।মিনটুর বড় ভাল লাগে এই জায়গাটা : সে ভাবে tata দিকে চেয়ে, যদি সে ভাল সাতার জানতো তা হলে ঠিক গিয়ে বসে থাকতো এ বয়াটার ওপরে | ট্টিমারের গতিবেগে ওটা কেমন ঢেউয়ের ওপর দুলে দুলে ওঠে! তার ইচ্ছে করে ওই ঢেউয়ের ওপর সাতার কেটে Calretarata সঙ্গে ote দিতে । ভাল সাতার জানলে ভয় কি এক ওই শুপ্তক্গুলে৷ ছাড]। সে বড়দের কাছে গল্প শুনেছে সাতার কাটলে হাঙ্গর কুমীর কিছুই করতে পারে না, কিন্তু ওই কাল কাল * মোযের মত ঘুরপাক্‌ খা ওয়া শুপ্তকৃগুলোকে জলের ওপর ভেসে উঠতে দেখলেই মিনটুর কেমন যেন ভয় করে; যদি তার পেটের নিচেই ঘুরপাক্‌ খেয়ে উঠে পড়ে!যেদিন তারা মাঝিদের সঙ্গে আলাপ করে নৌকার চালে গিয়ে বস্তে পায় কিংবা! গোপনে কোন ছোট ডিঙ্গি খুলে নিয়ে খানিকটা ঘুরে আস্তে পায় সেদিন তো তাদের স্মরণীয় দিন। নৌকোয় চাপলেই তাদের দুজনের মনে হয় তারা যেন সাতসমুদ্র তেরনদী পার হয়ে গল্পের eT সুন্দর দেশগুলোর দিকে যাচ্ছে!



Leave a Comment