পূর্বস্মৃতি | Purbasmriti

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
"cafe ১৫হল ভরিয়ে দিতে পারতেন | আমরা বাঙলার বাইরে মান্য হয়েছিলাম। কিন্তু মায়ের দৌলতে আমরা শিশুকাল থেকেই অনেক বাঙলা গান শিখেছিলাম। শুধু যে রবীন্দ্র-সঙ্গীত তা নয়; যাত্রার গান, Sty পুজার গান, আগমনীগান সবই মা গাই- তেন | মনে পড়ে মায়ের মধুর গলায় সাওতালী গান ঃ “বাবুদের কলা বাগানে ওলো, আমার গোলাপক্কাট] ফুটেছিল চরণে 1” নয়ত ভাদুর গান ঃ *কাশীপুরের রাজার মেয়ে ছিলে তুমি নন্দিনী, জয় ভাছুমণি |” যাত্রার গানে ডীষ্মের শরশয্যার গান ছিল মার প্রিয় : “মরিরে বাপ কুমার আমার | এদশা তোর কে করিল 1 জানিরে তোর ইচ্ছামরণ শরশয্য| কিসের কারণ বিশ্বমাঝে কোন পাও Sere) নাম ঘুচাল ” আজকালকার দিনে গল্প বলা আর শোনার রেওয়াজ উঠেই গিয়েছে । মা গল্প বলতেন আর্টিস্টের মত | আমরা মুগ্ধ হয়ে শুনতাম। আমার সবচেয়ে ছোট ভাই মুলু প্রতিরাত্রে ঘুমোবার সময় গল্প শুনতে চাইত ৷ তার কয়েকটা ফেভারিট গল্প ছিল | তাঁর মধ্যে একটা হল WIQIT গল্প ৷ মা যদি গল্প বলতে বলতে কোনও যায়গাটা একটু বদলে ফেলতেন, মুলু তৎক্ষণাৎ সংশোধন করে firs | আমার পছন্দ ছিল অমৃল্যরতন শাড়ী আর সাত বোয়ের গল্প | শাশুড়ী সাত বৌকে খেতে দিচ্ছেন আর বলছেন : " “সাত বোয়ের সাত আসকে খড়কের আগায় ঘি খুঁৎ্খুৎখুৎকরছ কেন খেতে লারছ কি 1 দাও দাও ঢেকে রেখে দি” ।* বর্ষায় যখন কাল মেঘে আকাশ ঢেকে আসত, বৃষ্টি যেন নামে নামে, তখন পাড়ায় পাড়ায় বড বড় নিম গাছের ডালে প্রকাণ্ড প্রকাণ্ড GE দড়িতে ঝুলিয়ে দোলন



Leave a Comment