সাহিত্য [বর্ষ-২৫] [সংখ্যা-১-৭] | Sahitya [Year 25] [No.1-7]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
সাহিত্য, ২৫শ বর্ষ, ১ম সংখ্যা | শাহিত্য-সম্মিলনের সভাপতির অভিভাষণ |,কলিকাতা মহানগরীর এই বিশাল পুর্রীমণ্ডপে বঙ্গ-সরস্কতীর অনুরক্ত SH পুত্রগণকে একত্র সমাসীন দেখিয়া আমার"কি যে আনন্দ হইতেছে, তাহা বলিতে পারি না। আমার ইচ্ছা হইতেছে, দুই we নিস্তব্ধ হইয়৷ BEA আনন্দ-মাগরে মনকে ভাসাইয়া দিই। সেদিন বই না--আমার চক্ষের সম্মুখে ভারতী-মাতার জন দশ বাছা বাছা ভক্ত সেবক ব্গবিদ্যার পতিত ভূমিতে একটি ক্ষুদ্র চারা-গাছ রোপণ করিয়| AE করিয়৷ তাহার নাম দিলেন সাহিত্-পরিষৎ। ইহারই মধ্যে তাহা একটা বৃক্ষের মত বৃক্ষ হইয়! উঠিয়াছে দেখিয়৷ Sats মনে আনন্দ ধরিতেছে না-_-বিধাতার Ste দেখিয়া! আহলাদে আমার মুখে বাক্য সরিতেছে না। সে দিন নিম্নে Shai নত San যাহাকে আমি দোখয়াছি ক্ষুদ্র safe চারা-গাছ--আজ উর্ধে নয়ন উন্মীলন sha তাহাকে দেখিতেছি প্রকাণ্ড একটা বনস্পতি--ইহা অপেক্ষা আশ্চর্য্য আর কি হইতে পারে ? ঈশ্বরের ক্কপার তাহার শুভ ফল বঙ্গের আপাদমস্তক জুড়িয়৷ যে কিরূপ প্রচুর পরিমাণে ফলিয়৷ উঠিয়াছে, তাহা আপনারা যতটা জানেন, ততটা Stal আমার পক্ষে সম্ভব নহে যদিচ;-_কেন Al প্রথমতঃ যোলো-সতেরে| বৎসর বা ততোধিক কাল যাবৎ আমি লোকালয় হইতে marta বোলপুরের নির্জন কুটারে বাস করিতেছি; দ্বিতীয়তঃ আমি সংবাদপত্র ছুই না; কিন্তু তবুও যখন ভাল ভাল লোকেরু মুখ দিয়া সময়ে সময়ে সাহিত্য- পরিষদের শরীবুদ্ধির কথা-_সুদুর আকাশ-মার্গে যেন শঙ্খঘণ্টার মঙ্গলধ্বনি হইতেছে এইরূপ মৃদু-মধুর, ভাবে-__আমাত্র কর্ণে পৌছিতে HE হইতেছে না, তখনই আমি বুঝিয়াছি যে, এ আগুন খড়ের আগুন” নহে ?-বাড়বানল যেমন জলে ACS না, ঝড়ে টলে A, এ আগুন তাহারই ছোটো ভাই! অপার করুণার সাগর বিশ্ববিধাতার গুঢ় অভিপ্রায় কে বুঝিতে পারে! fireসকলেই আমরা এটা বুঝিতে পারি যে, মঙ্গলের হুচনা যেখানে যত দেখিতে পাওয়া যায়, তাহা ভাঁহারই অভিপ্রেত, Wore তাহা ব্যর্থ হইবার নহে। এখন ধাঁহারা আজিকের মত Seat ঘটাড়ম্বরকেই সাহিত্য-পরিয্নদাদি সভার সার সর্বস্ব. মনে করিতেছেন-- কতিপয় বৎসর পরে যখন সাহিত্য এবং বিজ্ঞানের দৈবী A প্রভাবে বঙ্গলক্ষ্মীর বিষাদাচ্ছন্ন মলিন বদন মেঘযুক্ত শারদ-পূর্ণিমার ate উচ্ছল হইয়া উঠিবে, আর. তাহ; দেখিয়া লোকে যখন সাহিত্য-পরিষদের জয়জয়কার করিতে থাকিবে, তখন তাঁহারা বলিবেন, “এ যাহ! দেখিতেছি এ'কে তো সুধু কেবল ঘটা-আড়ম্বর বলা



Leave a Comment