ভারতের সাধক [খণ্ড-১] | Bharater Sadhak [Vol. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
লীত্রৈলঙ্গস্বামীঅভিজ্ঞতার কাহিনী গুনিয়| সকলেই বুঝিলেন, সাধনার হুমেরুপিখরে আরোহিত এই নবাগত যোগীর শক্তি পরিমাপ করিতে অনেকেরই" কল্পনা Whew হইবে |নর্্মদাতটে এ আশ্রমে আট বৎসর অবস্থানের পর ব্রৈলঙ্গস্বামী প্রয়াগে আসিয়া উপনীত হন |সেদিন ব্রিবেণীসঙ্গমের ঘাটে স্বামীজী বসিয়া! আছেন | ATTA, আকাশে মেঘের বড় ঘনঘটা ৷ কালে কালে! মেঘের বুক চিরিয়া মাঝে মাঝে fag ঝলকিয়। উঠিতেছে। আসন্ন ঝড়ের আশঙ্কায় স্থানটি তখন প্রায় জনশূন্য |রামতারণ ভট্টাচার্য্য নামে এক ব্রাহ্মণ ব্রৈলঙ্গস্বামীকে অত্যন্ত ভক্তি করিতেন । নদীতীরে আসিয়। যোগীবরের দিকে Stara দৃষ্টি পড়িল । ব্রাহ্মণ বড় চিন্তিত হইলেন | এ সময়ে বাব] এখানে বসিয়া ? ঝড় বাদলে যে তাহার মহা কষ্ট হইবে !নিকটে আসিয়া কহিলেন, “বাবা, এখনি ঝড় উঠছে । আপনি নদীতীরে বসে HAYS কেন কষ্ট পাবেন 1 কাছেই লোকালয় রয়েছে, সেখানে এসে AA 1”স্বামীজী প্রশান্ত কে কহিলেন, “হমারে লিয়ে ফিকির মৎ করো, হুমারা কোই কষ্ট, নই হোগা । লেকিন ওয়ে ares যাত্রীয়েোকো তো APA কর্নে পড়েগা !”” অথ1ৎ, আমার জন্য কোন দুশ্চিন্তার কারণ cas 1 কোন কিছুতেই আমার বিপদ হয় না, BS হয় না, কিন্তু এ নৌকার আরোহীদের তো বীচাতে হবে!স্বামীজীর অঙ্গুলি-সঙ্কেত অন্নসরণ করিয়া রামতারণ লক্ষ্য করিলেন, দূরে একটি নৌকা তরঙ্গবিক্ষুব্ধ নদীর সহিত যুঝিতেছে। কয়েকজন আরোহী উহাতে দণ্ডায়মান | সঙ্গমঘাট লক্ষ্য করিয়! নৌকা অতি কষ্টে আগাইয়া আসিতেছে fea একি ছুর্দোব ! Qe ঝড়ের তাড়নায় হঠাৎ কখন উহা নদীগর্ভে তলাইয়া গেল |১৯



Leave a Comment