শ্রীম-দর্শন [ভাগ-১] [সংস্করণ-৩] | Shrim-darshan [Pt. 1] [Ed. 3]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
Dace দেখলাম সেই দিন থেকে বুঝলাম, ভগবান আমার প্রার্থনা স্তনে Sars দিয়েছেন--শীম কর্ণধার | আর একটি arate পূর্ণ হলো এই সঙ্গে । বাল্যকাল হতে আরুণি, উপমন্থ্য, বেদ--এ'দের কথা পড়ে গুরুণৃহে বাস করবার ইচ্ছা হতো খথবিসঙ্গে। শ্রীমকে লাভ করে আর তীর সঙ্গে বাস করে এই বাসনাও পূর্ণ হলো FCT | এই মিলনের পূর্বে ঠাকুর ও স্বামীজীর বই পড়তাম, বেলুড় মঠ ও দক্ষিণেশ্বরে য্তোম। মর্টন স্কুলে শ্রীম _একথা জানাও আছে, দেখাও আছে। কিন্তু সবই মূলত: স্বামীজীর সম্পর্কে । তখন এই নৃতন দৃষ্টি খোলে নাই। এই ঘটনার দিন ae নিত্য Ana কাছে যেতে লাগলাম। তার কথা একাগ্র মনে শুনতাম ও লিখতাম ঘরে ফিরে । মনে হত--এই কথা আমার প্রাণ শীতল করেছে, লিখে রাখি, যখন শ্রীমকে পাব না তখন পড়ে শাস্তি লাভ করবো। অপরকে শোনান বা বই প্রকাশের বিন্দুমাত্রও ইচ্ছা প্রথমে ছিল না তা বলা হয়েছে। অপরের কথাতেও লেখা হয় ae প্রাণের ভিতর থেকে প্রেরণা এলো লিথতে, তাই লিখেছিলাম। সেই লেখাই এখন 'শীম-দর্শন'রূপে প্রকাশিত। কিছুদিনের মধ্যেই বুঝতে পারলাম, ল্রী় আমার গুরু। কিন্তু Sar কথা ও ব্যবহারে গুরুগিরির নামগন্ধও ছিল ali উহাই আরো বেশী আকৃষ্ট করল,। তাঁর নিকট প্রথম শুনলাম, যিনি অখও সচ্চিদানন্দ, বাক্যমনের অতীত, তিনিই এসেছিলেন শ্রীরামকবষ্ণরূপে, এই সেদিন scl গেলেন, ‘ate বাড়ালে ধরতে পারা যায় তাঁর সৌরভ হাওয়া এখনও বহন করে বেড়াচ্ছে। আর শুনলাম, ঠাকুরের প্রতিজ্ঞা-'যে আমার চিন্তা করবে সে আমার এব লাভ করবে, যেমন পিতার Set পুত্র লাভ করে” তাঁকে লাভের সহজ উপায়ের কথা শুনলাম-_'আমায় ধ্যান করলেই হবে, তোদের আর কিছু করতে হবে a! “A কে আর তোরা কে এটা জানতে পারলেই হবে'-- ঠাকুরের এই মহাবাক্য | আর চিনলাম মঠকে নৃতন করে। শ্রীরামকৃষ্ণ, বিবেকানন্দ, মঠ- এসব পূর্বে এক দৃষ্টিতে দেখতাম। শরীর কৃপায় এখন অস্ত wre ঢেখতে লাগলাম। Saree যুগাবতার, নরেন্রাদি সাঙ্গোপাঙ্গ-__যেমন চৈতন্তযদেব ও or atcerite | শ্রীরামক্বষ্ণগপ্রচারের প্রধান কেন্দ্র বেলুড় মঠ। সমন্ন্যাদীরা মাঈবৰ হলেও ভিন্ন স্তরের মাহয--আমাদের প্রণম্য। বেলুড়* মঠের এক অভিনব রং



Leave a Comment