গ্রামের কথা | Gramer Katha

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
‘©Selo মহাশয়ু, গ্রামের পণ্ডিত।. তাহার কোনও পূর্ঝপুর্ পাণ্ডিত্যের জোরে বেশ কিছু ব্রম্মোত্তর হস্তগত করিয়৷ বংশধরদের ay ate যান। বংশলোচন ভট্টাচার্য তীহার সপ্তন'বংশবর) তাহার মেই উদ্ধ তন পূর্বপুরুষের মতই বংশলোচন গ্রামের লোককে পাজি দেখিয়া ব্যবস্থা দেন, ধর্মাধন্মের পথ প্রদর্শন করেন এবং আশে-পাশে HBAs গ্রামের পণ্ডিত বলিয়া বিদায় গ্রহণ করেন । তবে সাত পুঙুষে পাণ্তিত্য অনেকটা জলীয় Sty ধারণ করিয়াছে। বংশলোচন ব্যাকরণ শাস্ত্রে যৎকিঞ্চিৎ ব্যুৎপত্তি লাভ করিয়া রঘুবংণের এক aT সমাপ্ত করিয়াই স্বৃতি পড়িবার উদ্দেশ্যে নবদ্বীপে যাত্রা করেন; সেথানে রণুনন্দনের উদ্বাহ-তত্ব ও শুলপাণির আ্রাদ্ধবিবেক পড়িতে আরস্ত করেন । মাসধানেক ব্যর্থ পরিশ্রমের পর তাঁহার অধ্যাপক তাহাকে বিদায় করেন।ংশলোচন অবিলম্বে দেশে না ফিরিয়| কাশী যান এবং সেখানে বরন খানেক কাটাইয়া দেশে প্রত্যাবর্তন করেন। গ্রামের লোকে Stacey একটা দিগ্গজ পণ্ডিত বলিয়া জানে, নবদ্বীপ ও কাশীতে তাহার প্রতিভার প্রকাশ সম্বন্ধে নানারূপ কথা গ্রামে চলিত ছিল।ংশলোচন এখন বৃদ্ধ। যে কিছু বিদ্য| তিনি অর্জন করিয়াছিলেন, তাহা এতদিনে নিঃশেষে geal afar গিয়াছে। কিন্ত গ্রাম্য শাস্বে তাহার দীর্ঘ অভিজ্ঞতায় অসাধারণ ব্যুৎপত্তি ate হইয়াছিল। তিনি যে সকল ব্যবস্থা দিতেন, তাহা যদিচ প্রায়ই শূলপাণি বা রঘুনন্দনের অনুমত হইত না, তথাপি গ্রামের লোক তাহা মহামহোপাধ্যায় পণ্ডিতগণের মতের চেয়ে অনেক বেশী শ্রদ্ধার সহিত পালন করিত।



Leave a Comment