চৈতন্যদেব | Chaitanyadeb

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
১৮ চৈতন্যদেবএকাংশ ইসলামের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েছিল।” এর ফলে বাংলার মুসলমানের et গাণিতিক হারে বৃদ্ধি পেতে থাকে। amet ইসলাম জনসংখ্যার অধিকাংশটাই যে ধর্মান্তরিত হিন্দু সমাজের অংশ, সমাজবিজ্ঞানীরা তা স্বীকার করেছেন।* বিপথগামী হিন্দু সমাজ সম্পর্কে স্মৃতিকারেরা ছিলেন সম্পূর্ণ উদাসীন। afer রোধ করার জন্য সেদিন তারা কোনও সদর্থক পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। “হিন্দু সমাজের সংহতিই যদি স্মৃতিকারদের কাম্য হত, তা হলে ব্রাহ্মণ-শূদ্রে ভেদ সম্পর্কে এমন Ao APPA কখনোই সম্ভব হত না। ব্রাহ্মণ স্মৃতিকাররা শাল্তরীয় বিধান কঠোরতর করেছেন “সম্পূর্ণ পৃথক ও বিচ্ছিন্ন' মুখ্যত ব্রাহ্মণের স্বার্থরক্ষার উদ্দেশ্যে, এ কথার প্রতিবাদ করা কঠিন।”* মধ্যযুগে হিন্দু শিষ্টবর্গীয়দের একটি ধারা যাগ-যজ্ঞ, পূরজার্চনা ও ধর্মীয় ক্রিয়াকাণ্ড নিয়ে সর্বদা ব্যস্ত থাকতেন, শান্ত্ররর্চায় সময় অতিবাহিত করতেন। আড়ম্বরপূর্ণ পূজানুষ্ঠান ছিল ব্যয়বছল, ফলে অর্থনৈতিক সংগতিহীন সমাজ উপাসনা পদ্ধতি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে প্রতিষ্ঠা করল লৌকিক দেবদেবীর। বিষহরি, চণ্ডী, যষ্ঠী, এমনকী যক্ষ-রক্ষেরাও জনমানসে নিজের আসন প্রতিষ্ঠা করল।! তন্ত্রসাধকেরা পঞ্চ 'ম' কারের সাধনায় ছিলেন সিদ্ধহস্ত। ঝাড়ফুঁক, কবচ-তাবিজের সঙ্গে বশীকরণের তত্তবটিও ছিল এঁদের করতলগত। ফলে সমাজে এঁদের প্রভাব ছিল সীমাহীন। মানুষ এঁদের ভক্তি করত, আবার ভয়ও করত। অপরদিকে, 'শূদ্র'রা সমাজে এতটাই অপাঙ্ক্তেয় ছিল যে, তারা যে মানুষ-_এ ভাবনা তাঁদের মনে স্থান পেত না। মানব আত্মার অপমান সে যুগের অগ্রগতিকে প্রতিহত করেছিল। স্মৃতিকারেরা এতটাই আত্মকেন্দ্রিক ও Asse ছিলেন যে, অবক্ষয়কে তারা একেবারেই অনুধাবন করতে পারেননি। বুঝেছিলেন চৈতন্যদেব। মধ্যযুগে জন্মেও তিনি ছিলেন আধুনিক, কুসংস্কারহীন এবং মুক্ত মনের মানুষ। মানবতার অপমানের বিরুদ্ধে তিনি প্রতিবাদ করেছিলেন। সামাজিক অচলায়তনকে ভেঙে দিয়েছিলেন, জাড্যতাকে আঘাত করেছিলেন,>. বঙ্কিম রচনাবলী-_যোগেশচন্দ্র বাগল সম্পাদিত, ২য় খণ্ড, পৃ. ২৯৩২. বঙ্গে বৈষ্ণবধর্ম-_রমাকাস্ত চক্রবর্তী, পৃ. ২৬ চৈতন্যদেব : ইতিহাস ও অবদান-_-অবসত্তীকুমার সান্যাল ও অশোক ভট্টাচার্য সম্পাদিত, ২য় সং, পৃ. ২৩ Hinduism and Islam in Mediaeval Bengal—E. C. Dimock, P-10৩. বঙ্গে বৈষ্ণবধর্ম, পৃ. ২৬৪. চৈতন্যদেব : ইতিহাস ও অবদান, পৃ. ২৭৫. চৈতন্যতাগবত-_বৃন্দাবনদাস, সুকুমার সেন সম্পাদিত, ১/২



Leave a Comment