কুইনিন | Quinin

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
কুইনিন ৭ক্ষেপে বলতে গেলে প্লাসমোডিঅমের জীবনচক্তরে দুইটি বিশেষ অবস্থা-_ ১, মশার পাকস্থলীতে যৌনচক্রুি, আর ২. মাহযের দেহের রক্তে অযৌন BaF:( | স্ত্রীওপুরুষ গ্যামেটোসাইটস মণার পাকস্থলীতে । সী যৌন চক্র 7 উএসি্ট | প্পোরোজোইট ae কামড়ে মানুষের রক্তে মেশে) টোফোজোইট < মানুষের রক্তে |] facets See l ae di অযৌন চক্রমশার কামড়ে কয়েকটি স্পোরোজোইট (Sporozoite) মাহুষের দেহের রক্তে এসে মিশল । এরা রক্তের লাল কণিকায় প্রবেশ করল, আর ট্রেফোজোইটে (Trophozoite) পরিণত হল। এর বৃদ্ধি পেয়ে বিভক্ত হয়ে সিজোণ্ট ( Schizont ) আঁকার গ্রহণ করে। সিজোপণ্টগুলি বিদীর্ণ ক'রে মেরোজোইট বের হয়ে রক্তে মেশে। মেরোজোইট আবার লাল কণিকায় প্রবেশ ক'রে ট্রোফোজোইটে পরিণত হয় | যৌন চক্রকতকগুলি ট্রোফোজোইট আবার বড় হয়ে গ্যামেটোসাইট.স (Gameto- cytes) হয়। মশা কামড়ালে গ্যামেটোসাইট.:স মশার পেটে চলে যায় ।' সেখানে গ্যামেটোসাইট্‌সের laa প্রকট হয়। স্ত্রী ও পুরুষ গ্যামেটের মিলনে জাইগোট (Zygote) উৎপন্ন হয় । তার পর এরা মশার পাকস্থলীর দেয়ালের পাতলা স্তর ভেদ ক'রে উএসিস্ট ( Oocyst) arr বৃদ্ধি পায়। সিস্ট থেকে অসংখ্য স্পোরোজোইট বেড়ে ওঠে । তার পর শতধা হ'য়ে মশার লালাগ্রন্থি-রসে গিয়ে মেশে । মশা*কামড়ালে মানুষের রক্তে স্পোরোজোইট মিশে যায় |



Leave a Comment