রাজপুত জীবন-সন্ধ্যা | Rajput Jiban-sandhya

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
১৬ রাজপুত জীবন-সন্ধ]]দীর্ঘ ও বলিষ্ঠ বাহু এবং ধীরগঞ্ভীর-পদবিক্ষেপ দেখিয়া! বিস্মিত হইলেন। এরূপ উন্নতকায় পুরুষ তিনি দেখেন নাই, অথবা কেবল আট বৎসর পূর্বে একজনকে দেখিয়াছিলেন।ক্ষণেক পর যুবা AVA দণ্ডায়মান হইয়া বলিলেন-_এক্ষণে আমার একটি অনুরোধ আছে, কারণ জিজ্ঞাসা করিবেন না। আপনার উষ্ণীয দিয়৷ আপনার নয়ন AIS করুন, পরে আমি আপনার হস্ত ধারণ করিয়| লইয়া যাইব । যদি অস্বীকৃত হয়েন এইস্থানে বিদায় হইলাম। ওতুর্জায়লিংহ বুঝিলেন, অস্বীকার করা বৃথা। বিবেচনা করিলেন, যুবক কখনই আমার অনিষ্ট করিবেন না, এইক্ষণেই আমার প্রাণরক্ষা করিয়াছেন। যুবকের সহায়ত| ভিন্নও এই নিবিড় বন হইতে বাহির হইবার উপায় নাই। ক্ষণেক এইরূপ foal করিয়া, উষ্ণীষ খুলিয়৷ নিঃশৰ্ে যুবকের হস্তে দিলেন, যুবক দছুর্জায়সিংহের নয়ন বন্ধন করিলেন।যুবক হুর্জায়সিংহের হস্ত ধরিয়। প্রায় এক ক্রোশ পথ লইয়া যাইলেন। weenie কোন্‌ দিকে যাইতেছেন কিছুই জানিলেন না, কেবল একটি পর্ববত আরোহণ করিতেছেন, বুঝিতে পারিলেন। শেষে মুবক সহসা দণ্ডায়মান হইলেন, তাঁহার চক্ষুর বন উন্মোচন করিয়া দিলেন, peas বিস্মিত হইয়া চারিদিকে চাহিয়া দেখিতে লাগিলেন।রজনী এক প্রহরের সময় দুর্জায়লিংহ আপনাকে এক অন্ধ কারময় eens অপরিচিত লোক দ্বার! cafes দেখিলেন।



Leave a Comment