উপনিষদের আলো [সংস্করণ-৩] | Uponishder Alo [Ed. 3]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
র্ছউপনিষদের আলোউপনিষদকে বলা হয় আরণ্যক। অরণ্যের গভীর শাস্তির ভেতর ধ্যানলোকে Grea প্রকাশ। উর্ধমানস স্তর থেকে অবতরণ করে অমল জো্যোতি, এই জ্যোতি দেয় অধ্যাত্ব সত্যের দৃষ্টি। সত্য নিজের মহিমায় প্রতিষ্ঠিত; বিশ্বশক্তি ও বিশ্ব প্রাণের স্কতত্র এই সত্যেই বিধৃত। ধ্যানের গভীরতায় চিত্তের বৃত্তিগুলির উন্মবীলন, বিশ্ব-বিকশিত চেতনার সঙ্গে অন্তরের যোগ । যোগ দেয় সত্যের উদ্দীপ্ত |AB অন্তঃচেতনাতে নিহিত, তার উদ্ধার করতে হয় অন্ত:চেতনায় সমাহিত হয়ে। অন্তঃচেতন] দিব্য-চেতনার সঙ্গে নিত্যযুক্ত। দিব্য-চেতনা হতে অবতরণ করে সত্যের মহিমা, জ্ঞানের অরুণালোক, আনন্দের সংবাদ। এত সত্যের ভাবনা নয়, সম্যক দৃষ্টি। ভাবনার গভীরতা দেয় শ্রদ্ধা । শ্রদ্ধা সত্যের বিধৃতি | ধারণ-মসামর্থ্য প্রতিষ্ঠিত হলে হয় জীবন সত্যের প্রতিষ্ঠা। উপনিষদ সত্যকে ey fady করেনি। সত্যকে ধারণ করেছে প্রচ্ছালোকে। উর চেতনার ABTA cart উঠে উপনিষদের তত্ববোধ। প্রসাদণ্ডণে উপনিধদ অতুলনীয় |সংখ্যায় উপনিষদ হচ্ছে Ste আট। একশো আটের বদলে কেউ QS বারও বলেন। সব উপনিষদই অবশ্য সমান প্রামাণ্য নয়। তবে ঈশা, কেন, কঃ, প্রশ্ন, মাগুক্য, WW, HSN, তৈত্তিরীয়, ছান্দোগ্য, বৃহদারণ্যক, এই দশটির প্রামাণিকত৷ সম্বন্ধে কোন সম্দেহ থাকতে পারে না।৪



Leave a Comment