শ্রীকৃষ্ণ প্রসঙ্গ [সংস্করণ-২] | Srikrishna Prasanga [Ed. 2]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
2 Rem প্রসঙ্গস্বরূপের বৈশিষ্ট্য নিরূপিত হয়। বস্তুতঃ স্বরূপের আস্বাদন এবং পরিজ্ঞান সবই শক্তির উপলব্ধির উপর নির্ভর করে। যে সকল শক্তির সহিত স্বরূপের ভেদ ANG, সে সকল শক্তিকে সাধারণতঃ জড় শক্তি afer মনে করা৷ যাইতে পারে। পক্ষান্তরে যে সকল শক্তি অভিন্ন- রূপে আশ্রিত রহিয়াছে তাহাদিগকে এক কথায় চিৎ-শক্তি বা চৈতন্তয- শক্তি নাম দেওয়া যাইতে পারে। ভাবিয়া দেখিতে গেলে বুঝিতে পারা যাইবে যে স্বরপের সহিত জড় শক্তির কোন বিরোধ নাই । যাহা কিছু বিরোধ প্রভীত হয় তাহা জড় শক্তির সহিত চৈতন্তশক্তির বিরোধ। কিন্তু চৈতদ্যশক্তি স্বরূপের সহিত অভিন্ন statin বলিয়া চৈতন্য-শক্তির বিরোধকেই কেহ কেহ স্বরূপের বিরোধ মনে করিয়া থাকেন। বস্তুতঃ স্বরূপের সহিত যদি কোন শক্তির বিরোধই হুইবে তাহা হইলে উহা এ শক্তির ifaw কি প্রকারে হইতে পারে? বাস্তবিক পক্ষে স্বরূপ সর্ববশক্তির আশ্রয় | চৈতন্য-শক্তিও যেমন তাহাতে প্রতিষ্ঠিত, wat জড় শক্তিও ভাহাতেই আশ্রিত । পরম্পর ভেদ ও ব্যাবৃত্তি চৈতন্যশক্তি এবং জড় শক্তিতে অবশ্যই রহিয়াছে। শক্তি ও শক্তিমানে কখনই কোন বিরোধ থাকে ali এই যে চতন্যশক্তির কথ! বলা হইল ইহা স্বরূপণশক্তি নামে পরিচিত এবং কেই কেহ ইহাকে wean শক্তিও বলিয়৷ থাকেন । এই শক্তিরই ব্যাপক প্রকাশের অন্তর্গতরূপে Base খণ্ড খণ্ড অংশ বিদ্যমান রহিয়াছে os সকল খণ্ড অংশ বস্তুতঃ শক্তিরই অংশ । তথাপি স্বরূপশক্তি স্বরূপ হুইতে অভিন্ন বলিয়৷ ইহাকে স্বরপের অংশ বলিয়াই পরিচয় দিতে হয়। এই অংশাংশিভাব থাকার দরুণ এই স্তরটিকে সাক্ষাদ্ভাবে অখণ্ড স্বরূপ শক্তির মণ্ডলের অন্তর্গত afer গ্রহণ করা৷ চলে না। এই অংশগুলি ate ও বিভিন্নাংশ ভেদে ছুই প্রকার। ইহারা aya, অর্থাৎ ইছাদিগকে চিংৎ-পরমাণু aera পরিচয় দেওয়া চলে । এই ভিন্নাংশগুলি স্বরূপশক্তির ব্যাপক সত্তার যে প্রদেশে বিদ্ষমান রহিয়াছে তাহা এ শক্তির অস্তরঙ্গ স্বরূপের বাহুভাগে অবস্থিত। এই eras



Leave a Comment