ভূগোল শিক্ষণ শিক্ষা | Bhugol Shikshan Shiksha

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
১২ ভূগোল শিক্ষণ শিক্ষাউদ্বাহরণ অর্থনৈতিক ভূগোলের একটা উদাহরণ দিয়ে এই উদ্দেশ্য সাধন প্রণালী বিয়ে দেওয়া হলো |ভারতবর্ধের শক্তি উৎপাদনকারী খনিজ সম্পদভারতের খনিজ সম্পদ সম্পর্কে জ্ঞান দান করার সময় খনিজ সম্পদের তালিকা জানানো হয়। কিন্তু কোনো মতেই আশা করা যায় al এবং উচিতও নয়, প্রত্যেকটি খনিজ সম্পদের আস্কিক পরিমাণ ছাত্র ছাত্রীরা নির্ভুল ভাবে মনে রাখবে । কিন্ত প্রয়োজন হচ্ছে এই জ্ঞান দান দেওয়া যে, খনিজ সম্পদের দ্বারা শক্তির উৎস সাধনে ভারত কতটা অগ্রগামী তা জানোন৷ ৷ নিম্নলিখিত ধারণা জ্ঞাপন করে তভারতবর শক্তি সম্পদে কতট! উন্নত হয়েছে তা জানানো ৷ যেমন-_(ক) রাণীগঞ্জা, afan প্রভৃতি কয়লাখনি গুলিতে কি ধরণের উন্নততর প্রণালীতে কয়লা উত্তোলনে ব্যবহার করা হচ্ছে |(খ) আংক্লেশ্বর ও গৌহাটার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে পেট্রোলিয়াম ও স্বাভাবিক বাষ্প অবস্থানের আবিষ্কারের ফলে ভারতবর্ষের শক্তি উৎস কতটা বেড়ে যাবে। এর ফলে বিদেশাগত তেলের উপর নির্ভরশীলতা কতটা কমে যাবে ও বৈদেশিক সমুদ্র ব্যবহারের প্রয়োজন কমে যাবে যার ফলে ভারতের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে অনেকটা স্থিতিশীল অবস্থা আসবে!(গ) যে জায়গায় তেল বা কয়লা দছুয়েরইই অভাব, সেই সব অঞ্চলে যেমন পুর্ব পাঞ্জাবে, উড়িয়যায় ও দাক্ষিণাত্যের বিভিন্ন অঞ্চলে জলবিদ্যুতের উৎপাদন বাড়ার ফলে ভারতবর্ষ শক্তির উৎস ক্ষেত্রে নির্ভরতা পেয়েছে ।



Leave a Comment