রামকৃষ্ণ সাধন পরিক্রমা | Ramkrisna Sadhan Parikrama

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
যোলরামক্ব ফর সাধনার প্রতিষ্ঠা ভক্তিতে, সিদ্ধি ক্রিয়ায় এবং উন্মেষ জ্ঞানে, ইত্যাদি বিষয় সকল এই অধ্যায়ে স্থান পেয়েছে। রামকৃষ্ণ-সাধনার মৌলিকতা ও MAPS) সম্পর্কে সংক্ষেপে এখানে কিছু বল৷ হয়েছে। পিতার আদর্শ ওপ্রারন্ধের যে গৈরিক বীজ নিয়ে গদাধর সাধন-রাজে্য প্রবিষ্ট হয়েছিলেন, ধীরে ধীরে সেই Te সাধক রামক্কফে। অভিব্যক্ত হয়েছিল। গদাধর চট্টোপাধ্যায় ও সাধক রামকৃষষ্ণ-_উভয়ের মানসিকতায় কোন গুণগত পার্থক্য নেই, ব্যাপ্তি বা বিস্তারের দিক থেকে যে পার্থক্য দেখা যায় তা প্রারন্ধের ভাষায় পরিমাণগত দিক থেকে ব্যাখ্যা করা যায়। কিন্তু frente লোক গুরু ্রীণ্রীরামকফ্ণ পরমহংসদেব বা সাধক রামকৃষ্ণ যখন পূর্ণতার স্তরে অধিষ্ঠিত হন তখন তিনি প্রারন্ধের tet অতিক্রম করে গেছেন এবং গদাধর চট্টোপাধ্যায়ের জগ্ম-মৃত্যুর ইতিহাস এবং তার ইহুজীবনের জাতি, আয়, ভোগ, সবই তিনি সাক্ষী-দৃষ্টিতে দেখেছেন। অতএব, কামারপুকুরের tates চট্টোপাধ্যায়, দফ্ষিণেশ্বরের সাধক রামকৃষ্ণ এবং লোক- গুরু সিদ্ধ-সাধক শ্রীণরীরামকষ্ণ পরমহংসদেব-_এই তিন সত্তা ভিন্ন হয়েও অভিন্ন, আবার অভিন্ন হয়েও ভিন্ন। ভিন্ন, কারণ সাধক রামক্বষ্ের দৃষ্টি ব্যবহার- উধ্ব' হলেও অধ্যাত্ম ভূমিতে পুরোপুরি প্রতিষ্ঠিত হয় নি, পূর্ণতা-প্রাপ্ত সিদ্ধ- সাধক শ্রীশীরামকৃষ্ণ পরমহংসের দৃষ্টি পুরোপুরি অধ্যাত্ম জগতে প্রতিষ্ঠিত হলেও ব্যবহার-ভূমিকে তিনি কোন প্রকারে উপেক্ষা করেন নি। সমাজ- কল্যাণের ব্রত Susy হিসাবে তিনি গ্রহণ করেন। বর্তমান অধ্যায়ে সে- faag কিছু আলোচন! আছে। অভিন্ন, কারণ ace তিনটি সত্তাই একই GIS চৈতন্তের WITS |তাছাড়াও, এই অধ্যায়ের প্রধান বিষয় হল শ্রীশ্ীরামকফ্ণের দীর্ঘ বারো বছর সাধনার একটা সমীক্ষা ও বিশ্লেষণ। এ নানা ধরনের সাধনার মধ্যে wate শক্তি-সাধনা ও বৈদাস্তিক সন্ন্যাস গ্রহণ ও নিবিকল্প সমাধিতে উত্তরণের কথা বিশেষ স্থান পেয়েছে। ঠাকুর রামকৃষ্ণের তন্ত্রোক্ত শক্তি- সাধনা এক বিস্ময়কর ব্যাপার। বিষ্ণুক্রান্তায় প্রচলিত চৌষট্রিখানা তন্ত্রোক্ত সাধনায় তিনি কতিত্তের ace উত্তীর্ণ হল । শহীর।মকষ্ণের ত্ত্বসাধনার উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হল শক্তিগ্রহণ না করেই তিনি বীরাচারী সাধনায় কৃতকার্য হন। আজন্ম ব্রহ্মচারী রামকষ্ণের পক্ষে কোন দুরূহ সাধনায় উত্তীর্ণ হতে তিন দিনের বেশী সময় লাগে নি। প্রসঙ্গত এখানে উল্লেখ্য যে সাধনায় উত্তীর্ণ হতে তোতাপুতন্রীর মত সয্ন্যাসীর দীর্ঘ চল্লিশ বছর সময় লেগেছিল সাধক রামকৃষ্ণ তা তিন দিনেই শেষ করেছিলেন। তন্ত্র-সাধনার পর তিনি বৈষ্ণবোক্ত States সাধনায় মন দিলেন এবং বৈষ্ণব ভাবের চরম



Leave a Comment