কাকজ্যোৎস্না [সংস্করণ-৪] | Kakjyothsna [Ed. 4]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
২৩ কাকজ্জে্যোওস্বাউমা ঘর ছাড়িয়া চলিয়া যাইতেছিল, wed ডাকিলেন। উমা ফিরিল। অরুণা কহিলেন-_“বৌমা কোথায় ?”“স্নান কর্তে গেছে ।”“তোর প্রদীপদা আজ চলে” যাচ্ছেন, মাকে বল্‌ কিছু ভালো করে” cate দিতে । বৌমার ঘরে Goa ধরিয়েছিস্‌ ?”“এই যাই ।” বলিয়া উমা ড্রুতপদে অদৃশ্য হইয়া গেল।ক্ষণ কালের জন্য আবহাওয়াঁটা স্বচ্ছ হইয়া আসিয়াছিল, সহসা আবার গাঢ় মেঘ করিয়া আসিল । সেই মেঘান্ধকার নমিতার দুই নিঃসহায় চক্ষু ; হইতেই ঝরিয়। পড়িতেছে। এই yee নমিতার আবিততাব হইল না বটে, কিন্তু প্রদীপের মনোমুকুরে যাহার ছায় পড়িল সে হয় ত? ঠিক নমিতা নয়» একটি কল্পনাভরণা দুঃবৈশ্বর্য্যময়ীর ছবি। কবির কল্পনা উন্নত হইতে- হইতে ইন্ছ্রিয়াতীত হইয়া যে মহিমাময়ী নারীমুর্ি পরিগ্রহ করে, ঠিক সেই aS! তাহাকে নমিতা an, কিছু ক্ষতি হইবে না।AAMT ম্যানেজারের সঙ্গে ঝগড়া SAM প্রদীপ উপরে আ্‌সিয়৷ দেখিল, তাহার নামে এক চিঠি আসিয়াছে । ঠিকানায় হাতের লেখা দেখিয়াই পত্র-লেপ্ধবরুকে চিনিল এবং সেই জন্যই তৎক্ষণাৎ চিঠিটা খুলিল aT আয়নার কাছে পাড়াইয়া শক্ত চিরুনি দিয়া নিজের রুক্ষ pref ছি'ড়িতে-fe fers ম্যানেজারের উপর রাগটা প্রশমিত করিতে লাগিল।এই যুগে SMF হয় ত' প্রদীপ ক্ষমা করিত না, কিন্তু তাই বলিয়া পৈতৃকসম্পত্তি অটুট . রাখিবার জন্য সবী-র এই পিতৃভক্তিকেও স্বর্গাণ রোহণের সোপান বলিয়া সে স্বাকার করিতে পারে নাই। তাই স্মবী-র বিবাহে সে ত* যায়ই নাই। বরং*তাহাদের দুইজনে যে উপস্যামখানি '



Leave a Comment