জীবনখতার কয়েকপাতা [খণ্ড-১] | Jibankhatar Kayek Pata [Vol. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
জীবন-খাতার কয়েক পাত1 ৩করলেই আমাদের আর সে তল্লাটে cate পাওয়া যেত না। রাম নামে ভূত পালায়, আমরাও রামসিংয়ের নামে অদৃশ্য হতাম |দাদামশাইকে সবাই খুব অস্ধাভক্তি করলেও রিশেষ একটা শ্রেণী তাকে সুনজরে দেখত না। এই শ্রেণীটি হচ্ছে বৃটিশ সরকারের পুলিশ-বাহিনী |দাদামশাই রাজনৈতিক নেতা, গরম গরম বক্তৃতা দেন, THT বিরুদ্ধে উত্তেজনামূলক প্রবন্ধ লেখেন, কলকাতার বিপ্লবীদের কাগজ 'নবশক্তির? সম্পাদনা করেন। অরবিন্দ, বিপিন পাল, অশ্বিনী দত্ত প্রভৃতির crear বন্ধু। গোপনে বিপ্লবীদের সাহায্য করেন। তা অনুশীলন-সমিতির মসভ্যদের আশ্রয় দেন। তার cre ছেলে অর্থাৎ আমার creat «চিত্তরঞ্জন গুহঠাকুরত৷ তারই প্ররোচনার ফলে কিশোর বয়সে বরিশাল শহরে বে-আইনী 'বন্দেমাতরম” ধ্বনি করার অপরাধে পুলিশের লাঠির ঘা খেয়ে TY অবস্থায় পুকুরের জলে পড়েন। রক্তে পুকুরের জল লাল হয়ে ওঠে |কাজেই পুলিশ, সি-আই-ডি নানাভাবে নানাবেশে এসে তার খোঁজ নিয়ে যায় । তাদের নজরে লোকটা নাকি 'সাংঘাতিক* শ্রেণীর। বেশীদিন একে বাইরে রাখা চলে a দাদামশাইয়ের চিঠিপত্র সব তারা পড়ে দেখে |একদিন বাড়ীতে কান্নাকাটি পড়ে গেল। মেয়ের কেঁদে আকুল, মায়ের বুড়ী ঠান্‌্দি ডাক ছেড়ে চিৎকার করতে লাগলেন! আশে পাশের বাড়ীর লোক জমে গেল। আমরা ছেলেমানুয, বিশেষ কিছুই বুঝলাম না, শুধু বুঝলাম হঠাৎ বাড়ীতে কোনো বিপদ এসে উপস্থিত হয়েছে |পুলিশ দাদামশাইকে ধরে নিয়ে গেল-*-আর বিনা-বিচারে তাকে নির্বাসিত করলো ত্রম্মদেশের Bahia জলে । পরে শুন্লাম, দাদামশাইয়ের এক কর্মচারী খাদ থকে চিঠি



Leave a Comment