বঙ্গ-বিজয় বা ভিষক-দুহিতা | Banga-Bijoy Ba Bhishak Duhita

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ । ৫ বিষাদযয় ভাব আসিয়া, cata স্থররমযা আবাসবাটিকাটা বড়ই অন্ধকারময় করিয়া তুলিয়াছিল। এই উভয় আঁধার বুকে লইয়া! একটা অগাদশবর্ষায় VT ITs ও Seed aig একটা ত্রয়োদশ- ain বিষাদ প্রতিমা নির্ণিমেষ নয়নে aaa’ cata মুখথানার প্রতি চাহিয়াছিল--চাহিয়া, চাহিয়া, চাহিয়া, মৃত্মারুতসঞ্চালিত শিশির সিক্ত args কেবলি অশ্রু বিসর্জন করিতেছিল।বালক--বিজয়টাদ । বালিকা তাহার ভগিনী--_পাল্না।রোগী কতক্ষণ চুপ করিয়া নিদ্রা যাইতেছিল, হঠাৎ অবস্থার ৷ বৈলক্ষণ্য দুষ্ট হইল। নয়নচাদ সহসা যাতনায় এ পাশ ও পাশ“ করিতে লাগিলেন। তাঁহার আর কথা কহিবার শক্তি ছিল না-- বালক-বালিকা অনেক প্রশ্ন করিয়াও উত্তর পাইল না। একজন tan অরে দেয়ালের নিকটে ক্ষুদ্র আসনে বসিয়া ঘন ঘন রোগীর প্রতি লক্ষ্য রাখিতেছিলেন, তিনি এখন উঠিয়া নিকটে আসিলেন |. নিকটে আসিয়া একবার তীক্ষদৃষ্টিতে চারিদিকে চাহিয়া দেখিলেন ; তার পর নাড়ী স্পর্শ করিলেন । নাড়ী দেখিয়া চিকিৎসক বড় ভীত হইলেন। জীবনীশক্তিবড় ধীরে ধীরে বহিতেছে। তাঁহার মুখমণ্ডল বড় গম্ভীর হল তিনি ধীরে ধীরে কক্ষ পরিত্যাগ করিলেন |যতক্ষণ চিকিৎসক রোগীর্‌ অবস্থা লক্ষ্য করিতেছিলেন, ততক্ষণ বালক-বালিক! একদুষ্টে তাহার যুখ প্রতি চাহিয়াছিল। চিকিৎসক গৃহের অস্তরাল হইলে, চক্ষু মার্জনা করিয়া বালিকা she, “Ste, কি দেখিতেছ, আমাদের বুঝি সর্বনাশ হইতেছে ।” যুবকের চক্ষেও উদ্বেগের চিহ্ন প্রকটিত হইতেছিল 1 পরিচারিকা



Leave a Comment