সৈয়দ মুজতেবা আলী রচনাবলী [খণ্ড-২] | Saiyad Mujteba Ali Rachanabali [Vol. 2]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
[ive ]জার্মান ভাষা পড়াতেন পরে তিনি ইসলামিক কালচার বিভাগের অধ্যাপক নিযুক্ত sa) বিশ্বভারতীর অধ্যাপনা ছাড়বার পর সাহিত্যচর্চা ছাড়৷ আর কিছু করেননি |১৯৩১ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের শিক্ষাত্রতী শ্রীমতী রাবেয়া খাতুনের সঙ্গে তাঁর বিবাহ say মুজতবা আলীর দুই পুত্র সৈয়দ মশররফ, আলী এবং সৈয়দ জগলুল আলী বাংলাদেশেই বাস করেন।॥ তিন ॥সৈয়দ মুজতবা আলীর মধ্যে একটা ভাবুক, AM ছট্‌ফটে রসিক শিশু পুরুষ লুকানো! ছিল । পরিহাসের তলায় অনেক গ্লানি লুকিয়ে রাখার ক্ষমতা তার ছিল অসাধারণ । 'দেশে-বিদেশে' কি 'চাচা-কাহিনী'র পাতায় পাতায় যার.অজন্র fart ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। গভীর মর্মাস্তিক সব দুখের কাহিনী কত অনায়াসেই না বলে যেতে পারতেন! হাসতে গিয়ে মনে হত কি বোকাই না বনে গিয়েছি।৫নং পার্ল রোডের বাড়িতেই তার সঙ্গে আমার শেষ দেখা। বেশ কিছুদিন ধরে রোগে ভুগছিলেন। কোথায় সেই উচ্জ্বলকান্তি ! অবসম়ন পাগুর চেহারাটি নিয়ে তিনি “আস্তাঞ্জা'হোক” বলে চৌকির উপর উঠে বসলেন। চারদিকে বই ছড়ানো। এলোমেলো ঘর। গায়ে একটা নক্শী-কীাথা জড়ানো।এই এলোমেলো বেশবাসের মধ্যেও যেটা হারায়নি তা হল তার অনর্গল কথার ate, তাঁর রচনায় যা বয়েই চলেছে।গৌরকিশোর ঘোষ



Leave a Comment