বনস্পতির বৈঠক [পর্ব-১] [খণ্ড-২] | Banaspatir Baithak [Pt. 1] [Vol. 2]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
নৌকায় উঠলুম দুজনে। রাত প্রায় আটটা। ঠাণ্ডা নেমেছে গঙ্গায়। গলা বাড়িয়ে রামলোচনকে বলে দিলুম, আদর্দিকেশবের দিকে চল-__রামলোচন হালটা ধরে নৌকার ডগায় বসে খইনি টিপতে লাগল। তার এক সহচর দাড় ঠেলে নৌকা ছেড়ে দিল। Tal উত্তরবাহিনী। আমরা উত্তরে চললুম।ছুইয়ের নিচে ছোটখাটো ঘরটি অন্ধকার। মেঝের উপর চাটাই বিছানো। সেখানে বেশ গুছিয়ে বসল শীলা, এবং আমাকে তার গায়ে-গায়ে বসাল। বসলুম বটে কিন্তু আমরা পরস্পরের থেকে অনেক দুর। কতটুকু পরিচয় হয়েছে আমাদের কতটুকু সময়ের মধ্যে ? গতকাল ধর ঘণ্টা দুয়েকের অন্তরঙ্গতা ? তার আগের রাত্রে লীলা আচমকা আমার SSAA ধরে আচিয়ে দিয়েছিল, তার চেয়ে বেশি কিছু নয় ত? এইটুকুতেই যদি কেউ বলে প্রণয় প্রসঙ্গ বা প্রেমের কাহিনী, তা হলে আমি মানব না। মন জানাজানি হল প্রণয়ের RE | কিন্তু এখন পর্যন্ত কে কাকে কতটুকু জানি? আমরা দুজনেই ত দুজনের অজানা! আমার মধ্যে অনেক AAAS, অনেক অক্ষমতা, অনেক ফাকি আর মেকি রয়েছে। কিন্তু এটি নিশ্চয়-নিশ্চয় জানি আমি প্রেমিক পুরুষ নই, আমার ভিতরে কোনও প্রণয়ীর Hants নেই! আমি যেন সেই চিরকালের নিষ্ঠুর ও নিরাসক্ত পর্যবেক্ষক, যারা চিরস্তনকালের শিল্পী বংশপরম্পরার দয়াহীন উত্তরাধিকারী--আমি তাদেরই বংশের এক অতি ক্ষুদ্র মানবক মাত্র। আমি সেই অনাদদি-অনস্ত কালের রাজ-সম্রাট নীরো--যার ALATA শুধু রোমনগরী নয়, সমগ্র দযুলোক-ভুলোক যদি দাউ-দাউ করে জ্বলতে থাকে তবু সে আপন বীশীটি বাজিয়ে যাবে রসবোধের নিগুচু তন্ময়তায় |__কি বলো শীলা, এ কি সত্যি নয়?নীলা ফিরে তাকালো আমার দিকে । আমার একখান! হাত সে ধরেছিল। তার কালে পল্লব ঢাকা দুই টুকরো অন্ধকার চোখ আমার চোখের উপরে রেখে শুধু বলল, সত্যি! তুমি যা ভাবছ সব সত্যি । আমার কিন্তু চমৎকার লাগছে ।wears গঙ্গায় ধীরে ধীরে ভেসে যাচ্ছিলুম দুজনে । বাইরে Gris feces সকল দ্বার খোল৷।। গগনে-গগনে যোগ-তপন্থিনী রাত্রি যেন কান পেতে শুনছিল দুই পথভ্রষ্ট নী তিভ্রষ্ট স্থলিতপদ তরুণ-তরুণীর TET |শান্ত ও স্থির হয়ে Mal যেন এক নিবিড় রসে তন্ময় হয়ে বসে ছিল। কিন্ত আমি ঈষৎ চাঞ্চল্যবোধ করছিলুম। এক সময় বললুম, শীলা, একটু খোলাখুলি- ভাবে যদি দু'একটা কথা নিয়ে নাড়াচাড়া করি, তুমি কি শুনবে?



Leave a Comment