অবিস্মরণীয় মুহূর্ত | Abismaraniya Muhurta

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
অবিস্মরণীয় মুহূর্ত ১২সাধনার এক প্রান্তে দাড়িয়ে আছেন নানাসাহেব আর এক প্রান্তে দাড়িয়ে আছেন নেতাজী স্থভাষচন্দ্র, একজন মারাঠা, আর একজন বাঙালী-***..আশ্চর্ধের ব্যাপার, এই দুজনেরই বিপ্লব-নীতি, কৌশল, রাজনৈতিক ও সামরিক চরিত্র এক Strep ঢালা...রাজনীতি ক্ষেত্রে স্বভাষ- BY হলেন, ASG গান্ধীর নয়, নানাসাহেবেরই উত্তর-সাধক। এবং বর্তমান ভারতের এই ছুই সর্বশ্রেষ্ঠ বিপ্ল--অধিনায়কের রাজনৈতিক সাধনার মূলে ছিল একই জিনিস, হিন্দু ও মুসলমানের অভেদ বিপ্লব- সাধনার ভেতর দিয়ে এক পতাকার তলে হিন্দু ও মুসলমানের মিলিত ভাগতবর্ষকে গড়ে তোলা। কংগ্রেস মুখে প্রচার করেছে হিন্দু ও মুসলমানের twa, fee ঘটাতে পারেনি তাদের মিলন, যার ফলে বাংল! আর পাঞ্জাবকে দ্বিখণ্ডিত করে পাকিস্তানের wie দ্বারা এই সমস্যাকে তার] এড়িয়ে গিয়েছেন। মহাত্মা গান্ধী যে বিপ্লব এনেছিলেন, তাতে হিন্দুর ঈশ্বর ও মুসলমানের আল্ল! চরকার স্তুতোয় মিলিত হয়েছিলেন; কিন্তু নানামাহেব যে বিপ্লব এনেছিলেন, তাতে হিন্দু ও মুসলমানের রক্ত এক হয়ে মিশেছিল। নেতাজী যে বিপ্লব এনে ছিলেন, তাতেও হিন্দু ও মুসলমানের রক্ত এক হয়ে মিশেছিল ৷ এই রক্তের রসায়ন ছাড়া! এই জাতীয় মিলনের রক্ত পাকা হয়না। এদের দুজনের বিপ্লব যদি Gaye হতো, নিঃসংশয়ে বলা যায় ভারত দ্বিখণ্ডিত হবার কথা উঠতো না।আজ আমর! অনেকেই জানি না, মারাঠা নানাসাহেবের fage- সাধনার সব চেয়ে বড় সহায় ও সঙ্গী ছিলেন একজন অসাধারণ মুসলমান, আজিমুল্লাহ, খা তার নাম। সিপাই-বিপ্লবের সমস্ত পরিকল্পনা এই দুজনের প্রতিদিনের মিলিত চেষ্টার ফল । সামান্য বাবচি থেকে এই অসামান্য প্রতিভাধর লোকটি নিজের চেষ্টায় নিজেকে সেই যুগের সর্বশ্রেষ্ঠ লোকদের সমকক্ষ করে তোলেন এবং আজ একশেো বছর আগে এই লোকটি, ঠিক নেতাজীর মতই বেরিয়েছিলেন water, ঘুরে ঘুরে বেড়িয়ে- ছেন সেই সময়কার য়ুযরাপের রণক্ষেত্রে রণক্ষেত্রে আর রাজাদের দরবারে দরবারে ভারতের বিপ্লব-সাধনার সাহায্যের অনুসন্ধানের জন্য। ভারতে



Leave a Comment