পলাতকা [সংস্করণ-১] | Palataka [Ed. 1]

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
মুড়ে বসলো, তার লাল পাগড়িটা আলোয় Be হয়ে উঠলো আর সে কাধে বন্দুক রাখলে। কমলা কাদার উপর উপুড় হয়ে শুয়ে পড়লো, দেহ তার কাদায় খানিকটা ডুবে গেলো। সুড়ঙ্গটারভেতর ইন্দ্রের ভাঙার খালি করে aw হান! দিয়ে উঠলো, আবত্ধ' শব্দের বিপুল গুপ্তরণ তাকে বধির ক'রে দিলে | ছর্রাগুলৌ'দেওয়ালে ব্যাহত হয়ে SHAS মাটিতে তাপ-জুড়ানো শ্বাস ফেলে মিলিয়ে গেলো | তবুও আশ্রয়টা নিরাপদ | অন্ধকার ? হোকগে অন্ধকার ৷ এই তো নূতন অন্ধকার জীবনযাত্রার আরম্ভ ৷ না জানি এর শেষ বোথায়, সরকারী বদ্দীশালায় অথবা জগতের গহন বনে! কমলার মন ব্লছিলো, তার বাইরে থাকার দিন ফুরিয়ে গেছে, তার অদৃষ্টে ata নিরাপদ জীবনযাত্রা সম্ভব aT | স্ড়ঙ্গটার ভিতর গভীর রাত্রি কেবল 'ও-প্রান্তে আলোর একটা বড়ো বিন্দু, তাইতে শুধু প্রাণের আশ্বাস। ভিতরে কাল স্থির হয়ে গেছে, তার যেন গতি নেই। কমলা সুড়ঙ্গটার ইট-বাঁধানো দেওয়ালে ঠেস দিয়ে ব'সে আলোকবিদ্দুটাকে দৃষ্টি দিয়ে অবলম্বন ক'রে রইলো, তার মনে আনমনা ভাবনা কিন্তু দষ্টি আবদ্ধ সেই মালোর কেন্দটুকুতে। অবশেষে সুড়ঙ্গ-মুখেও ছায়া নামলো । কমলার চেতনা হলো বাইরে সন্ধ্যা নেমেছে, এইবার নেমে BATA রাত্রি । মনে পড়ে গেলো সন্ধ্যায় শাখ বাঙ্গানোটা তার কাজ, ভালো লাগতো তার ¢ae



Leave a Comment