আলোছায়ার খেলা | Alochayar Khela

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
লাল পালের নৌকোটা তখন উপসাগরের সীমানা অতিক্রম করছে।মেজর ব্যারী ঘৌৎ cee করে বললেন, 'আজব পছন্দ, লাল-রঙা-পাল, কিন্তু ফকির-কাহিনী আতঙ্ক এরানো গেলো।এইমাত্র যে যুবকটি সাতরে পাড়ে এসে পৌছেছে এরকুল পোয়ারো সপ্রশংস দৃষ্টিতে তাকে দেখছিলেন। প্যাট্রিক রেডফার্ন মানুষের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত । দীর্ঘকায় তামাটে শরীর | প্রশস্ত কীধ, সুগঠিত সঙন্ধীর্ণ উরু। তাকে ঘিরে রয়েছে একটা সংক্রামক হাসিখুশি আনন্দের ঢেউ--_একটা সহজাত সারল্য, যা তাকে সমস্ত মহিলা ও অধিকাংশ পুরুষের কাছে করে তুলেছে প্রিয়।সৈকতে দীড়িয়ে শরীরে জল ঝাড়ছিলো সে; খুশিতে হাত নেড়ে ইশারা করলো স্ত্রীর দিকে।প্রতি ইশারা ফিরিয়ে দিলো, ক্রিস্টিন, ডেকে উঠলো, 'এখানে এসো, প্যাট।'আসছি।'বালিতে পড়ে থাকা তোয়ালেটা তুলে নিয়ে সৈকত ধরে আরও কিছুটা এগিয়ে গেলো প্যাট্রিকঠিক সেই মুহূর্তে একজন মহিলা হোটেলের দিক থেকে তাদের অতিক্রম করে নেমে গেলো বেলাভূমির দিকে।তার উপস্থিতিতে ছিলো নাটকীয় আবির্ভাবের সমস্ত বৈশিষ্ট্যউপরন্তু, তার চলার ছন্দ জানিয়ে দিচ্ছে, এ তার অজানা নয়। আত্ম-সচেতনভাব আপাতদৃষ্টিতে সেখানে অদৃশ্য । এটা মনে হওয়াই স্বাভাবিক, তার উপস্থিতির নাটকীয় প্রভাব তার কাছে নতুন কিছু নয়।সে তরী ও দীর্ঘকায়। পরনে সাধারণ পিঠখোলা সাদা সাতারে পোশাক, এবং তার শরীরে উন্মুক্ত প্রতিটি অংশে সূর্যম্নানের সুষম বোগঞ্জ-প্রলেপ। কোন ভাস্কর্যের মতোই নিখুঁত তার গড়ন। উজ্জ্বল, আগুন রঙ চুল ঘাড়ের কাছে এসে নিয়েছে ঘনিষ্ঠ অস্তর্মুখী বীক। মুখমন্ডলে সামান্য কাঠিন্য, তিরিশটা বছর এসে আবার বিদায় নিলে যা চোখে পড়ে, কিন্তু সব মিলিয়ে সেখানে রয়েছে তারুণ্য রয়েছে জমকালো গর্বিত সজীবতা। তার ঘন নীল চোখ ওপর দিকে সামান্য টানা, এবং এক চৈনিক Cae ছড়িয়ে রয়েছে সারা মুখে। মাথায় তার যমজ-সবুজ পিচবোর্ডের এক স্বপ্নময় চীনে টুপি।মহিলাটির মধ্যে এমন কিছু একটা ছিলো, যা সৈকতে উপস্থিত অন্যান্য মহিলাদের করে দিলো তুচ্ছ ও FAS | এবং সমান অনিবার্যতায় উপস্থিত প্রতিটি পুরুষের (চোখে আকর্ষিত হয়ে গেঁথে গেলো তার শরীরে।এরকুল পোয়ারোর চোখ পুরোপুরি খুলে গেলো, তার গৌফজোড়া নেচে উঠলো নীরব প্রশংসায়, মেজর ব্যারী সোজা হয়ে বসলেন এবং তার বিস্ফারিত চোখ আরও বিস্ফারিত হলো। পোয়ারোর বাঁ দিকে ধর্মযাজক স্টিফেন লেন সশব্দে গভীর শ্বাস নিলে এবং তার শরীরের প্রতিটি পেশী হয়ে উঠলো কঠিন।মেজর ব্যারী কর্কশ ফিসফিস স্বরে বললেন, 'আর্লেনা স্টুয়ার্ট (মার্শালকে বিয়ে করার আগে ওঁর নাম তাই ছিলো)-_-অভিনয় ছেড়ে দেবার আগে ওঁর শেষ নাটক “কাম She cat”? আমি দেখেছিলাম। দেখবার মতোই চেহারা বটে, কি বলেন?১৮



Leave a Comment