গণ-আন্দোলন ও সংবাদপত্র | Gana-andolan O Sambadpatra

বই থেকে নমুনা পাঠ্য (মেশিন অনুবাদিত)

(Click to expand)
| ২গণ STEMS ও সংধাঁদপল্পবিদ্বংজন সমাজে স'মানের আসন দিয়ে গেছেন এবং আঁম নিজেও বাংলা ভাষারই সেবক | কি্তু সে দানের তুলনায় আজাকর বাংলা সংবা?পর্ নিশ্চয়ই 'বইুগুণ এীশ্বর্যশালী। আজ যথন আমাদের সংবাদে ' বৈদাঁতক গাঁতাত সারা বিশ্বের সংবাদ ছাপা হচ্ছে, এমনকি গ্রহাম্তরের খবর OAD, তখন কিন্ত: আঁদ ATA আমাদের সাংব্যাঁদকতার TT Aare কোম্পানপীর আমলের সাীমাবদ্ধতাকে আঁত?ম করে যায়ীন । এমনাঁক, ১৭৫৭ সালে যখন পলাশার যুদ্ধ অন্‌ষ্ঠিত হল এবং গঙ্গার তাঁরে MOR Ta তপ্ত গেলে Baa 1বিষ্বাসঘাতকের চক্রান্তে, আর BES নামক একজন ভাণ্যা্বেষীর দ্বারা ইংরেজ শাসনের Tans হোল তখন সেই অঁভুতপ্‌ব* এাঁতহাসিক দুণ৬গিযকে জনগণের নিকট পেছে দেওয়ার জন! একধানা সংবাদপত্রেরও আন্তত্ব ছল না। অথচ আজ রাস্তার একটা সামান্য মারামারির খবরও সংবাদপত্রে সাঁবস্তারে প্রকাশিত হয়ে থাকে।'অবশ্য ভারতীয় বা বাংলা সংবাদপত্রের আঁদ পর্বে' রেলওয়ে, টঢৌোলগ্রাফ বা টৌলফান ইত্যাঁদর কোন যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল না এবং আজকের মত OTT WOT মধ্যে পাঁথবীর এক প্রান্ত থেকে অন। প্রান্ত পর্যন্ত রোঁ্ডও-যোগে সংবাদের আদান প্রদানও ABI ছল না। সুতরাং স্বাভাবিক কারণেই সংবাদপত্রের গণ্ডা ছিল অত্যন্ত সংকীর্ণ এবং সমাজ SCA ধারার মধ্যেও কোন গাঁতবেগ ছিল aT | Tae: ১৮৯৪ সালে রামমোহন রায়ের কালকাতা আ' মণের (রংগপুর থেকে) সংগে সংগে বাঙালীর জণীবনে যেন এক নতুন স্রোত ধারার গাঁতবেগ সণ্ট্যারত হল। বাঙালীর নবজাগরণের ইতহাসেব সুচনা হল এবং TS? বাংলা সংবাদপল্তকে কেন্দ্র করেই বাঙালী জীবনের জাগরণ বার্তা ঘোষিত হতে AMT | আর বাংলা তাষায় বাংলা গদ্য সাঁহত্যেরও প্রথম বকাশ ঘটল বাংলা সামাঁয়ক পত্র ও সংবাদপত্লের মাধ্যমে । বাংলা সংবাদপত্র বা সামাঁয়ক পত্লের এই গোঁরব TAS সাংবাদিক হসাবে গর্ব করার TS |কিন্ত; সেই সংগে এই প্রীতহাসিক সত্যও অস্বীকার করে লাভ নেই যে, বাংলা বা ইংরাজী ভাষায় কিংবা অন্য যে কোন ভারতীয় ভাষায় সাংবাঁদকতা নিয়ে আমরা যতই গর্ববোধ কাঁর না কেন, উনবিংশ শতকে ইংরাজী শিক্ষার প্রবর্তন ও প্রসার ছাড়া আমাদের



Leave a Comment